১৭ নভেম্বর ২০১৮ ৯:১:২৬
logo
logo banner
HeadLine
সোমবারের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত, এক সপ্তাহের মধ্যে জোটের আসন ভাগাভাগি * অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে গণমাধ্যমের সহযোগিতা চেয়েছে ঐক্যফ্রন্ট * নভেম্বরের শেষে ঝেঁকে বসতে পারে শীত * কাল ১৪ দলের সভা * মনোনয়ন চূড়ান্ত করার মূল আলোচনা এখনো শুরু হয়নি, চলছে জরিপ রিপোর্ট বিশ্লেষন - ওবায়দুল কাদের * মুক্তি পেল 'হাসিনা: অ্যা ডটারস টেল' ডকু চলচিত্র * সন্দ্বীপে জাতীয় গ্রীডের বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু * দলীয় নেতা-কর্মীদের জন্য নির্বাচন উৎসব নয়, পরীক্ষা * সফরকারী জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ২য় টেস্ট জয়ে সিরিজে সমতা * 'ষড়যন্ত্র চলছে সবাই সতর্ক থাকুন, বিদ্রোহী হলে আজীবন বহিষ্কার' - মনোনয়ন প্রত্যাশীদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী * বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় 'গাজা', ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত * এক আসনেই ৫২ মনোনয়ন,৭টিতে ১টি করে, আওয়ামীলীগের মোট ফরম বিক্রি ৪০২৩ * বংগবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার মধ্য দিয়ে সন্দ্বীপের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা একত্র হয়ে ফরম জমা দিলেন * আওয়ামী লীগ মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার কাল * ৭ দিন পেছালো নির্বাচন, ৩০ ডিসেম্বর ভোট * অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিত করা সরকারের উদ্দেশ্য - প্রধানমন্ত্রী * আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম নেয়া ও জমা শেষ হচ্ছে আজ , ১৪ নভেম্বার সকালে সাক্ষাতকার * শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচনে সব দল ও জোট, স্বাগত জানালেন তিনি * সাকিবকে খেলা চালিয়ে যেতে বললেন প্রধানমন্ত্রী * ৬৮ শতাংশ তরুণ ভোটার শেখ হাসিনার কর্মকাণ্ডে সন্তুষ্ট * মনোনয়ন না পেলে করণীয় নিয়ে অঙ্গীকার নিচ্ছে আওয়ামীলীগ,চলছে ফরম উৎসব, দুইদিনে ফরম কিনলেন ৩২০০ জন * ভোটে যাচ্ছে ঐক্যফ্রন্ট : বিএনপিসহ বৈঠকে সিদ্ধান্ত, আজ দুপুরে প্রেসক্লাবে আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত ঘোষণা * আওয়ামী লীগ সংসদীয় বোর্ডের সভা আজ * নির্বাচনে যাচ্ছে বিএনপি, ঘোষণা আজকালের মধ্যেই * বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু * আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু আজ, সরগরম সভানেত্রীর কার্যালয় * নির্বাচন সামনে রেখে হার্ডলাইনে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী , অস্থিতিশীল পরিস্থিতি মোকাবেলায় কঠোর ব্যবস্থা * সরকার শুধু রুটিনওয়ার্ক করতে পারবে , আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে ব্যবস্থা নেবে কমিশন * ২৩ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহন * চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরের সাড়ে ৩ হাজার সন্ত্রাসী : বাঁশখালি ও সন্দ্বীপে রয়েছে অস্ত্র তৈরির একাধিক কারখানা , শীঘ্রই বিশেষ অভিযান *
     27,2016 Monday at 13:29:16 Share

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কী ৩০ বছর ? নাকি আমৃত্যু কারাদণ্ড?

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড কী ৩০ বছর ? নাকি আমৃত্যু কারাদণ্ড?

প্রশ্নটা তুললেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। গতকাল রোববার গাজীপুরে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার পরিদর্শন করে প্রধান বিচারপতি বলেছেন, 'আমাদের জেল কোড (কারাবিধি) অনেক পুরোনো। এটা নিয়ে ব্রিটিশ আমলে অনেক জগাখিচুড়ি হয়েছে। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নিয়ে একধরনের বিভ্রান্তি রয়েছে। এটা নিয়ে অপব্যাখ্যাও রয়েছে। যাবজ্জীবন অর্থই হলো যাবজ্জীবন, একেবারে রেস্ট অব দ্য লাইফ (জীবনের বাকি সময় পর্যন্ত)।'
প্রধান বিচারপতির এ বক্তব্যের সঙ্গে একমত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। জানতে চাইলে গতকাল তিনি বলেন, 'আমাদের পেনাল কোড (দণ্ডবিধি) ও জেল কোড (কারাবিধি) একসঙ্গে মিলিয়ে পড়লে দেখা যায়, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড আসলে ৩০ বছর নয়, স্বাভাবিক মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত কারাদণ্ড।'
তবে এ কথা মানতে রাজি নন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, দণ্ডবিধির ৫৭ ধারায় স্পষ্ট বলা আছে, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড গণনা করা হবে ৩০ বছর। এর বিকল্প কিছু করতে গেলে আইনের পরিবর্তন করতে হবে। এর আগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ছিল ২০ বছর। ১৯৮৫ সালে এরশাদ সরকারের আমলে আইন পরিবর্তন করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ৩০ বছর করা হয়। তাই আইন পরিবর্তন না করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডকে আমৃত্যু কারাদণ্ড হিসেবে কার্যকর করা সম্ভব নয়।
সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, ইংরেজিতে যেটা বলা হয় ইমপ্রিজনমেন্ট ফর লাইফ, বাংলায় তাকে বলে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। আক্ষরিক অর্থ ধরা হলে আজীবনের জন্য কারাগারে থাকতে হবে। আর দণ্ডবিধি অনুসারে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড মানে ৩০ বছর, এটা প্র্যাকটিস। এখন যদি এটা নিয়ে কোনো বিতর্ক ওঠে কিংবা ব্যাখ্যার প্রয়োজন হয়, তাহলে সেই ব্যাখ্যা দেওয়ার একমাত্র ক্ষমতা সর্বোচ্চ আদালতের। যদি এই প্রশ্ন আপিল বিভাগের সামনে যায়, আদালতই ঠিক করে দেবেন আসলে কোনটা সঠিক।
বর্তমানে যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা ৩০ বছর মেয়াদেই সাজা খাটছেন। এর প্রথম ব্যত্যয় দেখা দেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের মামলাগুলোর রায় দেওয়া শুরু হলে। একাধিক রায়ে দেখা গেছে, বিচারকেরা 'আমৃত্যু কারাদণ্ড' ভোগের সাজা দিয়েছেন।
অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার আপিলের রায়ে যেন যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নিয়ে কোনো বিভ্রান্তি তৈরি না হয়, সে জন্য আদালত সুনির্দিষ্টভাবে আমৃত্যু কারাদণ্ডের কথা উল্লেখ করে দিয়েছেন। ওই রায়ে আপিল বিভাগ যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নিয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে বলেছিলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আইন সংশোধন করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডকে স্বাভাবিক মৃত্যু পর্যন্ত কারাদণ্ড হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে দণ্ডবিধি ও কারাবিধি এখনো সংশোধন করা হয়নি।
তবে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, আন্তর্জাতিক অপরাধ (ট্রাইব্যুনালস) আইনে দণ্ডবিধি প্রযোজ্য নয়। এ জন্য যুদ্ধাপরাধের মামলার রায়ে আলাদাভাবে আমৃত্যু কারাদণ্ডাদেশ উল্লেখ করে দিয়েছেন। কিন্তু ওই আইন সাধারণভাবে প্রযোজ্য হতে পারে না।
বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আবদুল বাসেত মজুমদার মনে করেন, দণ্ডবিধির ৫৭ ধারায় যাবজ্জীবনের যে ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে, সেটাই থাকা উচিত। তিনি বলেন, আইনে যাবজ্জীবনের সংজ্ঞা স্পষ্ট। তাই যতক্ষণ না আইন পরিবর্তন হচ্ছে, ততক্ষণ অন্য কোনো ব্যাখ্যা আসতে পারে না।

User Comments

  • অন্যান্য সংবাদ