১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ ২০:৬:১৩
logo
logo banner
HeadLine
ইয়াবাকারবারিদের আত্মসমর্পণ: সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা ও ৩০ অস্ত্র জমা * প্রধানমন্ত্রীকে ৯৮ দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার অভিনন্দন * বিলুপ্তি ও ক্ষমা প্রার্থনার আহবান জানিয়ে জামায়াত ছাড়লেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক * বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলে খুবই চালাকির সঙ্গে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছিল * দ্রুতগতিতে চলছে ১০ মেগা প্রকল্প ও ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চলের নির্মাণকাজ * ভবিষ্যতে তরুণদের সুযোগ করে দিতে চাই - শেখ হাসিনা * একদিন আগেই শুরু হল বিশ্ব এজতেমা * ছয় দিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী আজ জার্মানি যাচ্ছেন * ২৮ দিনে জমির নামজারি , সর্বোচ্চ ৫৩ দিনে নক্সা অনুমোদন, ভবন নির্মাণে বীমা বাধ্যতামুলক * ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য উন্নত দেশ গড়তে চাই - প্রধানমন্ত্রী * ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি গ্রামবাসী সংঘর্ষ, নিহত চার * কর্ণফুলী টানেল : চট্টগ্রাম হবে ওয়ান সিটি টু টাউন * ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন * 'জয় বাংলা' মুক্তিযুদ্ধের স্লোগান, বীর বাঙালীর স্লোগান * সব হজযাত্রায় খরচ বেড়েছে * ডাকসু'র তফসিল আজ * অল্প জমি ও মাটি ছাড়া সবজি, ফুল, ফল উৎপাদনের প্রযুক্তিকে চাষী পর্যায়ে নিয়ে যান - কৃষিমন্ত্রী * আরও ১২২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর নাম ঘোষণা * রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ বাসস্থান চায় ঢাকা * হিন্দুকুশের বরফ দ্রুত গলছে : ভেসে যাবে দশ নদীর অববাহিকা , বিপন্ন হবে ২শ' কোটি লোক * উপজেলা নির্বাচনে ৮৭ চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল আওয়ামীলীগ, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীতা থাকবে উন্মুক্ত * জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের ঘোষনা * শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে আজ * দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার বাস্তবে রূপ দিতে হবে * সব ধরনের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে সরকারের নীতিমালা বৈধ: হাইকোর্ট * সন্দ্বীপ-চট্টগ্রাম ব্রিজ নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাই ও সন্দ্বীপে একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের আহবান জানালেন প্রধানমন্ত্রী * ২১ গুণীজনের ২১শে পদক লাভ * দুদকের ৩৩ মামলায় ৩৮৪ বছর কারাদণ্ড হয়েছিল নির্দোষ জাহালমের! * প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হবে - প্রধানমন্ত্রী * সব ধরনের মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করার তাগিদ দিলেন প্রধানমন্ত্রী *
     18,2017 Thursday at 07:49:54 Share

চাঁদাবাজি ও একক প্রভাব বিস্তারের জেরে সন্দ্বীপে এক শীর্ষ সন্ত্রাসী খুন

চাঁদাবাজি ও একক প্রভাব বিস্তারের জেরে সন্দ্বীপে এক শীর্ষ সন্ত্রাসী খুন

চাঁদাবাজি ও একক প্রভাব বিস্তারের জেরে সন্দ্বীপে উপ দলীয় কোন্দলে নিজ গ্রপের সন্ত্রাসীদের গুলি ও ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ঘটনাস্থলেই যুবলীগ কর্মী বাবলু (৩০) খুন হয়।  আহত হয় আরও ৪ সন্ত্রাসী । মঙ্গলবার রাত সাড়ে এগারটায় সন্দ্বীপ পৌরসভার তেগবাজের গো সাঁকো এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত বাবলু সন্দ্বীপ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের জয়নাল আবেদীনের পুত্র। সে পৌরসভা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক বলে দাবী করেছে তার পরিবার। ঘটনায় আহতদের মধ্যে রয়েছেন পৌর এলাকার ৩ নং ওয়ার্ডের রাজিব (২০), ও ৪ নং ওয়ার্ডের আবেদ (২৩),করিম (২১) ও শাকিল (২০)।


আহতদের মধ্যে রাজিবকে জরুরি চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে প্রেরণ করা হয়েছে। চোখের পাশে গুলিবিদ্ধ হওয়ায় তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। এ হত্যাকান্ডের জন্য বাবলুর স্বজনরা তার মামা রাসেলকে দায়ী করেছেন। সহকারি পুলিশ সুপার (সীতাকুণ্ড) রেজাউর রহমান রেজা জানান এটি কোন রাজনৈতিক বিষয় নয়, এলাকায় চাঁদাবাজি ও একক প্রভাব বিস্তারের জন্য এ খুনের ঘটনা ঘটেছে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে তালুকদার মার্কেট থেকে মোটর সাইকেল যোগে বাড়ি ফেরার পথে তেজবাগের সাঁকোর কাছে পৌঁছলে সংঘবদ্ধ একটি দল তার ওপর এলোপাথাড়ি সশস্ত্র হামলা চালায়। মোটর সাইকেলে থাকা তার অপর ৩ সহযোগী আহত অবস্থায় খালের পানিতে ঝাঁপ দিয়ে রক্ষা পেলেও বাবলু ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এসময় নিহত বাবলুর মোটর সাইকেলটি সন্ত্রাসীরা পুড়িয়ে দেয় এবং তাকে খালের পানিতে ফেলে চলে যায়।  খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে অনেক খোঁজাখুঁজির পরও বাবলুর লাশ উদ্ধার করতে পারেনি। সকালে এলাকার মানুষের সহযোগিতায় খাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।  বাবলুর খালতো ভাই সোহেল রানা মেম্বার বাবলুর মা ও বোনের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, রাসেলের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে হামলা চালিয়ে বাবলুকে খুন করেছে। বুধবার ময়না তদন্তের পর বিকেল ৫ টায় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। জানা গেছে, এলাকায় চাঁদাবাজি ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন ধরে মামা রাসেল ও ভাগিনা বাবলুর মধ্যে বিরোধ চলছিল।


সন্দ্বীপ থানার ওসি মো. শামছুল ইসলাম জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে মামলা করছে।

User Comments

  • সন্দ্বীপ প্রতিদিন