২১ জানুয়ারি ২০১৮ ২০:২৮:২৮
logo
logo banner
HeadLine
অ্যাজমা বা হাঁপানি : কেন হয়? লক্ষন ও চিকিৎসা * শেষ হল ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা * নব্য সুশীলদের অযাচিত বিরোধিতা বনাম উন্নয়নের রাজনীতি * স্বপ্ন পূরণ করেন শেখ হাসিনা * সক্ষমতা অনুযায়ী প্রবৃদ্ধি অর্জিত হচ্ছে না, বর্তমান প্রবৃদ্ধি ৭.২৮ শতাংশ * অনিয়ম, প্রতারণা, জালিয়াতির অভিযোগ তদন্তে ৭ হজ এজেন্সীকে মন্ত্রাণালয়ে তলব * গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে উচ্চশব্দে গান বাজানোর প্রতিবাদ করায় প্রতিবেশী বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা * পণ্যের গুণগতমান নিশ্চিত করতে রাষ্ট্রপতির আহবান * জেনে-বুঝে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করুন : অর্থমন্ত্রী * মার্কিন সিনেটে বাজেট বিল ব্যর্থ হওয়ায় সরকার কার্যক্রম অচল * পদ্মা সেতুর মূল কাজের অগ্রগতি ৫৬ শতাংশ * একবার রক্ত পরীক্ষায় শনাক্ত হবে সব ধরনের ক্যান্সার * চট্টগ্রামেও সক্রিয় একাধিক কিশোর গ্যাং * বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বৈষম্যহীন শিক্ষাব্যবস্থা * ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কা লড়াই আজ * বিশ্ব এজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু * রেলের টিকিটে যাত্রীর নাম লিখার সুপারিশ * আমার সাহস ও কাজ বিএনপির কাছে বড় সমস্যা * বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল * ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচন স্থগিত * আওয়ামী লীগ: ২০১৮'র বাস্তবতা বুঝতে পারছে কি? * সংসদীয় আসনপ্রতি ১০ মাধ্যমিক স্কুলের উন্নয়নসহ ১৮ হাজার ৪৮৩ কোটি টাকার ১৪ প্রকপ্ল একনেকে অনুমোদন * রাষ্ট্রায়ত্ত ৮ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল * জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় জননেত্রী শেখ হাসিনা * শেখ হাসিনা সরকারের প্রতি আস্থা কেন? * ২০১৮ সাল ॥ নির্বাচনের বছর * কাদের জন্যে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড? * ২৩ জানুয়ারী থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু * বিএনপি কেন বর্তমান সরকারের অধীনেই নির্বাচনে আসবে? * জয় দিয়ে বছর শুরু করল টাইগাররা *
     31,2017 Thursday at 08:19:30 Share

আজ পবিত্র হজ

আজ পবিত্র হজ

আজ বৃহস্পতিবার পবিত্র হজলাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইক লা শারিকা লাকা লাব্বাইক,ইন্নাল হামদা ওয়াননিমাতা লাকা ওয়ালমুলক, লা শারিকা লাকাঅর্থাৎ, ‘আমি হাজির, হে আল্লাহ আমি হাজির, আমি হাজির, তোমার কোনো অংশীদার নেই, সব প্রশংসা নিয়ামত শুধু তোমারই, সব সাম্রাজ্যও তোমার, তোমার কোনো অংশীদার নেই এই ধ্বনিতে আজ মুখরিত হবে আরাফাতের ময়দান


হজের তিন ফরজের মধ্যে জিলহজ্ব আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা অন্যতম ফরজ। আজ সৌদি আরবের মক্কা নগরীর মিনা থেকে আরাফাতের ময়দানে পুরুষ হাজিগণ শ্বেতশুভ্র সেলাইবিহীন ইহরামের দুই খণ্ড কাপড় এবং নারীরা স্বাভাবিক কাপড়ে তালবিয়া পাঠ করতে করতে মহান আল্লাহর কাছে নিজেকে সমর্পণ করে পাপমুক্তির আকুল বাসনায় সমবেত হবেন। সেখানে তাঁদের কেউ পাহাড়ের কাছে, কেউ বা সুবিধাজনক জায়গায় বসে ইবাদত করবেন। হজ পালন করতে এসে যাঁরা অসুস্থতার জন্য হাসপাতালে চিকিৎসাধীন, তাঁদেরও অ্যাম্বুলেন্সে করে আরাফাতের ময়দানে স্বল্প সময়ের জন্য আনা হবে। মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা দেবেন সৌদি আরবের গ্র্যান্ড মুফতি


হজের আহকাম পালনের লক্ষ্যে হাজিগণ গতকাল ফজরের নামাজের পর মক্কা থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে মিনার উদ্দেশে রওনা হন। তাঁদের কেউ গাড়িতে, কেউ বা হেঁটে মিনায় পৌঁছান। অবশ্য যানজট এড়াতে আগের দিন রাতেও অনেক হাজি মিনায় পৌঁছান। আরাফাতের ময়দানে যাওয়ার এক দিন আগে মিনায় পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা সুন্নত। সুন্নত আদায় করতে হজের এক দিন আগে মিনায় যান হাজিরা


আজ আরাফাতের ময়দানে খুতবার পর জোহর আসরের নামাজ আদায় করে হাজিরা সূর্যাস্ত পর্যন্ত সেখানে অবস্থান করবেন। এর পর তাঁরা পাঁচ কিলোমিটার দূরের মুজদালিফায় গিয়ে মাগরিব এশার নামাজ আদায় করবেন। রাতে তাঁরা সেখানে খোলা মাঠে অবস্থান করবেন এবং শয়তানকে পাথর মারার জন্য প্রয়োজনীয় পাথর সংগ্রহ করবেন


মুজদালিফায় ফজরের নামাজ আদায় করে হাজিরা কেউ গাড়িতে, কেউ হেঁটে মিনায় যাবেন। ফিরবেন নিজ নিজ তাঁবুতে। মিনায় বড় শয়তানকে সাতটি পাথর মারার পর পশু কোরবানি দিয়ে হাজিরা মাথার চুল কছর/খলক (ছাঁটা/মুণ্ডানো) শেষে গোসল করে সেলাইবিহীন দুই খণ্ড কাপড় বদল করবেন


এরপর স্বাভাবিক পোশাক পরে মিনা থেকে মক্কায় গিয়ে হাজিরা কাবা শরিফ সাতবার তাওয়াফ করবেন, কাবার সামনের দুই পাহাড় সাফা মারওয়া পাহাড়ে সাঈ করবেন। সেখান থেকে তাঁরা আবার মিনায় এসে আরও দুই দিন অবস্থান করে হজের অন্য আনুষঙ্গিক কাজ শেষ করবেন


মিনার কাজ শেষে মক্কায় বিদায়ী তাওয়াফ করার পর যারা মদিনা শরিফে যাননি, তাঁরা মদিনা শরিফ যাবেন। যারা আগে মদিনা শরিফ গেছেন, তাঁরা নিজ নিজ দেশে ফিরবেন


এদিকে সৌদি হজ মন্ত্রণালয় মোয়াচ্ছাসা কার্যালয়ের বরাত দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যম জানায়, মক্কা, মিনা আরাফাতের ময়দানে সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে সব হাজিকে বিনা মূল্যে খাবার, বিশুদ্ধ পানিসহ সব সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থা প্রতিষ্ঠান হাজিদের নানা উপহার দিচ্ছে


উল্লেখ্য, পবিত্র কাবা শরিফকে আবৃত করে রাখা কাপড়টিকে আরবরা বলে কিসওয়া আর আমরা বলি গিলাফ। আজ কাবা শরিফের গায়ে পরানো হবে নতুন গিলাফ। প্রতি বছর জিলহজ অর্থাৎ হজের দিন হাজিরা আরাফাতের ময়দানে থাকেন। হাজিরা আরাফাত থেকে ফিরে এসে কাবা শরিফের গায়ে নতুন গিলাফ দেখতে পান। নতুন গিলাফ পরানোর সময় পুরোনো গিলাফটি সরিয়ে ফেলা হয়। পুরোনো গিলাফ কেটে মুসলিম দেশের রাষ্ট্র সরকারপ্রধানদের উপহার দেওয়া হয়


কাবা শরিফের দরজার বাইরের গিলাফ দুটিই মজবুত রেশমি কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয়। গিলাফের মোট পাঁচটি টুকরা বানানো হয়। চারটি টুকরা চারদিকে এবং পঞ্চম টুকরাটি দরজায় লাগানো হয়। টুকরাগুলো পরস্পর সেলাইযুক্ত


জানা যায়, নতুন গিলাফটি তৈরি করতে ১২০ কেজি স্বর্ণ, ৭০০ কেজি রেশমি সুতা ২৫ কেজি রুপা লাগে। গিলাফের দৈর্ঘ্য থাকে ১৪ মিটার এবং প্রস্থ ৪৪ মিটার

User Comments

  • ধর্ম ও নৈতিকতা