২৫ এপ্রিল ২০১৮ ৬:৫৯:২৮
logo
logo banner
HeadLine
দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ * গ্লোবাল উইমেন লিডারশিপ খেতাব পাচ্ছেন শেখ হাসিনা * টরেন্টোয় পথচারীদের ওপর গাড়ি চালিয়ে ১০ জনকে হত্যা, সন্দেহভাজন আটক * একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি বেলাল চৌধুরীর আর নেই * ২৬ এপ্রিল অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী * সন্দ্বীপে পৃথক অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার ২ * দেশে ফিরলেন প্রধাণমন্ত্রী * সৌদি আরব ও যুক্তরাজ্যে ৮ দিনের সরকারি সফর শেষে আজ সকালে দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী * বিএনপি-জামায়াতের অপপ্রচারের জবাব দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী * দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সেঁজুতির চিঠির জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী * আজ বিশ্ব ধরিত্রী দিবস * ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে * রাজাকারের সন্তানদের চাকরিতে অযোগ্য ঘোষণার দাবি * শিশু ধর্ষণে মৃত্যুদণ্ডের আইন করছে ভারত * সন্দ্বীপে জামাত নেতাসহ ২ পলাতক আসামী গ্রেফতার * হালদায় ডিম ছেড়েছে মা মাছ, চলছে ডিম আহরণ ও রেণু ফোটানোর প্রক্রিয়া * হাজার হাজার কোটি টাকা রেমিটেন্স হিসেবে বিদেশী কর্মীরা নিয়ে যাচ্ছে * রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিন , রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহারে মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী অপরাধীদের বিচার করতে হবে -কমনওয়েলথ * আসছে মাসে এলএনজি পাবেন গ্রাহকরা * কোটা নিয়ে কথকতা! * সমৃদ্ধ বাংলাদেশের রূপকার শেখ হাসিনা * খুলেছে শ্রমবাজার, কর্মী নিয়োগে শীঘ্রই চাহিদাপত্র পাঠাবে আমিরাত * অতিক্রান্ত নববর্ষ ॥ সামনে সতর্কতা * সাধারণ ছাত্রদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে * সৌদি আরবে অগ্নিকাণ্ডে ৬ বাংলাদেশি নিহত * এশীয় অঞ্চলের ভবিষ্যতের মূল চাবিকাঠি হচ্ছে শান্তিপূর্ণ ও স্থিতিশীলতা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা * ৮-৪-৪-৪-৪-৮ * আমাদের উন্নয়ন ও স্বাধীনতার শত্রু-মিত্র * ঋণ জালিয়াতির মামলায় ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের পাঁচ কর্মকর্তার ৬৮ বছরের কারাদণ্ড * মুজিবনগর দিবসের স্মৃতিকথা *
     24,2017 Sunday at 08:21:30 Share

স্বচ্ছ, পরিচ্ছন্ন ও গ্রহণযোগ্যরাই আগামীতে মনোনয়ন পাবেন - আওয়ামীলীগ সভানেত্রী

স্বচ্ছ, পরিচ্ছন্ন ও গ্রহণযোগ্যরাই আগামীতে মনোনয়ন পাবেন - আওয়ামীলীগ সভানেত্রী

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, স্বচ্ছ, পরিচ্ছন্ন ও গ্রহণযোগ্য নেতারাই আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন। আর দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষেই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। এদিকে রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থীর বড় ব্যবধানে হারের কারণ খুঁজে বের করার তাগিদ দিয়েছেন তিনি। গতকাল শনিবার রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়ামের সভায় সভাপতির বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বৈঠক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
নাম প্রকাশ না করার অনুরোধ জানিয়ে বৈঠকে উপস্থিত একজন জানান, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে করানো সর্বশেষ জরিপেও বলা হয়েছিল, অন্তর্কলহের নিরসন করা না গেলে জাতীয় পার্টি ভালো করবে। তবে এত বিপুল ভোটের ব্যবধানে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কেন হারল, সেটা খুঁজে বের করা প্রয়োজন।

বৈঠকে উপস্থিত একজন নেতা জানান, আওয়ামী লীগের প্রার্থী হারলেও রংপুরে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ায়  সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে। তবে রসিক নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বড় ব্যবধানে পরাজয়কে অপ্রত্যাশিত হিসেবে বিবেচনা করছে আওয়ামী লীগ। জানা গেছে, রসিকে প্রার্থী নির্বাচনে ভুল ছিল কিনা, কারা দলীয় প্রার্থীকে অসহযোগিতা করেছেন, এসব বিষয়েও প্রতিবেদন দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বৈঠকে নেতাকর্মীদের ‘ওভার কনফিডেন্ট’ (অতি আত্মবিশ্বাস) হতে নিষেধ করেছেন বলেও জানান দলের প্রেসিডিয়াম এক সদস্য।

জানা গেছে, বৈঠকে আগামী জাতীয় নির্বাচন নিয়েও এখন থেকে প্রস্তুতি শুরুর নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে সরকারের ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডের পাশাপাশি বিএনপি-জামায়াতের ভয়াল নাশকতা, দুর্নীতি, দুঃশাসন, আগুন সন্ত্রাস, খালেদা জিয়াসহ জিয়া পরিবারের বিদেশে অর্থ পাচার ও মানুষকে পুড়িয়ে হত্যার প্রকৃত চিত্রও ভোটারদের সামনে তুলে ধরতে হবে।

এদিকে বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে দেশব্যাপী প্রচারণায় নামবে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় টিম। প্রেসিডিয়াম সদস্য, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্যসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের সমন্বয়ে একাধিক টিম গঠন করা হবে। এসব টিম জেলা-উপজেলা পর্যায়ে সফর করে অবস্থা বুঝে জনসভা, গণসংযোগ চালাবে। জনগণের কাছে দেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি প্রার্থী বাছাইয়ের কাজও করবে উল্লিখিত টিম। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, নির্বাচনের আগাম প্রস্তুতি গ্রহণের অংশ হিসেবে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যদের প্রত্যেকে একেকটি সাংগঠনিক বিভাগের দায়িত্বে থাকবেন। কে  কোন বিভাগের দায়িত্বে থাকবে, তা ঠিক করতে সাধারণ সম্পাদককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নতুন বছরের ‘প্রথম সপ্তাহ’ থেকেই এই সাংগঠনিক সফর শুরু হবে। নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পরই আওয়ামী লীগের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে বলে প্রধানমন্ত্রী জানান। প্রেসিডিয়ামের একজন সদস্য বলেন, ‘৫ জানুয়ারি গণতন্ত্র রক্ষদিবস পালন করা হবে। এছাড়া ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসেরও অনুষ্ঠান থাকবে দলের। সেখানে বিএনপি-জামায়াতের জ্বালাও-পোড়াও ধ্বংসযজ্ঞের চিত্র ফোকাস পয়েন্টে থাকবে। এখন থেকে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াতের ধ্বংসযজ্ঞের চিত্র বার বার জনগণের সামনে তুলে ধরার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সভায়।’

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রার্থী নিয়েও এই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে বলে জানান একজন কেন্দ্রীয় নেতা। তিনি বলেন, ‘ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে গ্রহণযোগ্য প্রার্থী দেওয়া হবে। আমাদের কাছে অনেক প্রার্থীর নাম এসেছে। কিন্তু নির্বাচনি তফসিল ঘোষণার পরই আমরা প্রার্থীর নাম ঘোষণা করব। জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হওয়ার মতো প্রার্থী দেওয়া হবে। আর তাকে জয়ী করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করতে নেতাদের নির্দেশ দেন তিনি।’ এদিকে আগামী ১২ জানুয়ারি সরকারের চার বছর পূর্তিতে জনসভা করার সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে। ওই জনসভায়ও সরাকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরার বিষয়ে কথা হয়। পাশাপাশি বিএনপি-জামায়াতের সহিংসতার বিষয়টিও তুলে ধরার নির্দেশ দেন শেখ হাসিনা। আগামী জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থিতা নিয়ে জরিপ চলছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এই জরিপের ভিত্তিতেই মনোনয়ন দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, মোহাম্মদ নাসিম, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররাফ হোসেন, ড. আব্দুর রাজ্জাকসহ দলের অধিকাংশ প্রেসিডিয়াম সদস্য উপস্থিত ছিলেন।খবরঃইত্তেফাক।

User Comments

  • রাজনীতি