২৫ এপ্রিল ২০১৮ ৬:৫৩:৪৮
logo
logo banner
HeadLine
দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ * গ্লোবাল উইমেন লিডারশিপ খেতাব পাচ্ছেন শেখ হাসিনা * টরেন্টোয় পথচারীদের ওপর গাড়ি চালিয়ে ১০ জনকে হত্যা, সন্দেহভাজন আটক * একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি বেলাল চৌধুরীর আর নেই * ২৬ এপ্রিল অস্ট্রেলিয়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী * সন্দ্বীপে পৃথক অভিযানে মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার ২ * দেশে ফিরলেন প্রধাণমন্ত্রী * সৌদি আরব ও যুক্তরাজ্যে ৮ দিনের সরকারি সফর শেষে আজ সকালে দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী * বিএনপি-জামায়াতের অপপ্রচারের জবাব দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী * দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী সেঁজুতির চিঠির জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী * আজ বিশ্ব ধরিত্রী দিবস * ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে * রাজাকারের সন্তানদের চাকরিতে অযোগ্য ঘোষণার দাবি * শিশু ধর্ষণে মৃত্যুদণ্ডের আইন করছে ভারত * সন্দ্বীপে জামাত নেতাসহ ২ পলাতক আসামী গ্রেফতার * হালদায় ডিম ছেড়েছে মা মাছ, চলছে ডিম আহরণ ও রেণু ফোটানোর প্রক্রিয়া * হাজার হাজার কোটি টাকা রেমিটেন্স হিসেবে বিদেশী কর্মীরা নিয়ে যাচ্ছে * রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিন , রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর গণহারে মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী অপরাধীদের বিচার করতে হবে -কমনওয়েলথ * আসছে মাসে এলএনজি পাবেন গ্রাহকরা * কোটা নিয়ে কথকতা! * সমৃদ্ধ বাংলাদেশের রূপকার শেখ হাসিনা * খুলেছে শ্রমবাজার, কর্মী নিয়োগে শীঘ্রই চাহিদাপত্র পাঠাবে আমিরাত * অতিক্রান্ত নববর্ষ ॥ সামনে সতর্কতা * সাধারণ ছাত্রদের সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে * সৌদি আরবে অগ্নিকাণ্ডে ৬ বাংলাদেশি নিহত * এশীয় অঞ্চলের ভবিষ্যতের মূল চাবিকাঠি হচ্ছে শান্তিপূর্ণ ও স্থিতিশীলতা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা * ৮-৪-৪-৪-৪-৮ * আমাদের উন্নয়ন ও স্বাধীনতার শত্রু-মিত্র * ঋণ জালিয়াতির মামলায় ওরিয়েন্টাল ব্যাংকের পাঁচ কর্মকর্তার ৬৮ বছরের কারাদণ্ড * মুজিবনগর দিবসের স্মৃতিকথা *
     09,2018 Tuesday at 20:53:04 Share

আরসার হামলা সাজানো নাটক!

আরসার হামলা সাজানো নাটক!

মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর গাড়িতে আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) হামলাকে সাজানো ঘটনা বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন, যখনই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের বিষয়টি সামনে আসে, তখনই  মনোযোগ অন্যদিকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য এ ধরনের ঘটনা ঘটানো হচ্ছে।


মিয়ানমার সরকারের দাবি, গত শুক্রবার হাতে তৈরি বোমা ও অস্ত্র নিয়ে ২০ জন ‘চরমপন্থী বাঙালি সন্ত্রাসী’ সামরিক বাহিনীর একটি গাড়ির ওপরে হামলা চালিয়েছে। ওই গাড়িতে করে একব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। হামলায় তিন জন আহত হয়।


এদিকে, মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে দ্য আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা)। রবিবার (৭ জানুয়ারি) এক টুইট বার্তায় রাখাইনে একটি সামরিক ট্রাকে চালানো হামলার দায়ও স্বীকার করে সংগঠনটি। রোহিঙ্গাদের রক্ষায় মিয়ানমার সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় অব্যাহত সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বিকল্প নেই বলেও এই বার্তায় উল্লেখ করা হয়। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে মিয়ানমারে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত অনুপ কুমার চাকমা বলেন, ‘‘রোহিঙ্গাদের রাখাইনে প্রত্যাবাসনের জন্য আগামী ১৫ জানুয়ারি ‘ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্ট’ চূড়ান্ত হওয়ার কথা। এর ঠিক ১০ দিন আগে আরসা এই হামলা কেন চালালো। ’’


অনুপ কুমার চাকমা  বলেন, ‘গত ২৪ আগস্ট কফি আনান কমিশন তাদের রিপোর্ট প্রদান করে, যেখানে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের বিষয়টি উল্লেখ ছিল। এর ঠিক একদিন পরে আরসা মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর ওপরে হামলার করলে, এই অজুহাতে রোহিঙ্গা জাতির ওপর নিপীড়ন শুরু হয়।’


তিনি বলেন, ‘একটি নির্দিষ্ট প্যাটার্নে আরসার কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয়। তারা যেটাই করে, সেটি মুসলিম রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের স্বার্থের বিরুদ্ধে যাচ্ছে এবং রোহিঙ্গারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এটি খুঁজে বের করা দরকার যে, আরসা কাদের হয়ে কাজ করছে। কারণ, বেশির ভাগ রোহিঙ্গাই তাদের সমর্থন  করে না।’


এ বিষয়ে মিয়ানমারে বাংলাদেশের সাবেক ডিফেন্স অ্যাটাশে মোহাম্মাদ শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘মিয়ানমার বাহিনী দাবি করছে যে, তাদের ওপরে আরসা আক্রমণ করেছে। কিন্তু এটি নিরপেক্ষভাবে যাচাই-বাছাই করার কোনও উপায় নেই।’


তিনি বলেন, ‘এই আক্রমণ আরসা করেছে কিনা সেটি বিবেচনায় না নিয়েও বলা যায়, তাদের কার্যক্রম রোহিঙ্গাদের সহায়তা না করে বরং মিয়ানমার সামরিক বাহিনীকে সহায়তা করছে।’


শহীদুল ইসলাম আরও বলেন,‘রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর অভিযান শুরু হবার আগে, তারা দুই ডিভিশন সৈন্য রাখাইনে মোতায়েন করেছিল। আগে থেকে পরিকল্পনা ছাড়া বর্ষাকালে যেভাবে রোহিঙ্গাদের গ্রাম পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে, সেটি করা প্রায় অসম্ভব। কারণ, রাখাইনে পেট্রোল বা ডিজেল সহজলভ্য নয়।’


আরসা হামলা করেছে বলে মিয়ানমার সরকারের দাবিকে সাজানো নাটক অভিহিত করে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেকজন সাবেক কূটনীতিক বলেন, ‘যখনই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের বিষয়টি সামনে আসে, তখনই মনোযোগ অন্যদিকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য এ ধরনের ঘটনা ঘটানো হচ্ছে।’


উল্লেখ্য, ২৫ আগস্ট মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর আক্রমণ শুরু হলে সাড়ে ছয় লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এর আগে থেকে আরও  চার লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছে। খবরঃ বাংলাট্রিবিউন।

User Comments

  • আন্তর্জাতিক