১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ০:২০:১৯
logo
logo banner
HeadLine
সন্দ্বীপ পৌরসভা ০৮নং ওয়ার্ড চডাইপাড়া সড়ক পাকাকরণ কাজের উদ্ভোধন * সাবেক এমপি ও মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউসুফ মারা গেলেন * খালেদা জিয়ার দুঃসময় ও অমোঘ নিয়তি * ডিসেম্বরে অবসরে যাচ্ছেন অর্থমন্ত্রী * বাংলাদেশ-মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক ,এক হাজার ৬৭৩ পরিবারের তালিকা হস্তান্তর * সরকারি চাকরিতে ঢুকতে হলে দিতে হবে মাদক পরীক্ষা * জাগদল থেকে বিএনপি: রাজনীতিতে জিয়ার উত্থান * প্রধানমন্ত্রী আজ দেশে ফিরছেন * সকালের নাস্তায় পান্তা ভাত * রহমতপুর হাই স্কুল ও মুছাপুর এবি হাই স্কুলের স্টুডেন্ট কেবিনেট এর উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ * রোহিঙ্গাদের ব্যয়ভার বহন করতে হবে বাংলাদেশকেই-সানেম * স্যরি, এভরিথিং ইজ টু লেইট খালেদা জিয়া * বাংলাদেশ দূতাবাসে হামলা: ব্রিটেন কি দায়িত্ব এড়িয়ে গেলো? * দেশে মাদকের চেয়েও ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে প্রশ্নফাঁস: হাইকোর্ট * খালেদার মুক্তি আন্দোলন কি টেনে নিতে পারবে বিএনপি? * যুক্তরাষ্ট্রের একটি স্কুলে গুলিতে নিহত অন্তত ১৭, হামলাকারী আটক * খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড * দুর্নীতিবাজদের বিচার হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী * আজ স্বৈরাচার প্রতিরোধ দিবস: সকালে 'টার্গেট ফায়ার' বিকালে বেধড়ক পিটুনি * রোহিঙ্গাদের ফেরাতে আন্তর্জাতিক সহায়তা চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী * 'রোহিঙ্গাদের খাদ্য সরবরাহে দাতাগোষ্ঠীর আগ্রহ কমছে' - ডব্লিউএফপি * 'দারিদ্র্য-ক্ষুধা দূর করতে গ্রামীণ অর্থনীতিতে বিনিয়োগ জরুরি' * চট্টগ্রামের ৫৬ পরীক্ষার্থী নজরদারিতে * এলো ঋতুরাজ বসন্ত * কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে যাত্রীবাহী নৈশকোচে ৮ যাত্রী পুড়িয়ে হত্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে, কারাগারে হাজিরা পরোয়ানা পৌঁছেছে ঢাকার ২টি নাশকতা মামলারও * চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ৭ পদে আ'লীগ,১২ পদে বিএনপি জয়ী * বিএনপি নেতা শামসুজ্জামান দুদু আটক * চলন্ত বাসে কলেজছাত্রী রূপা ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় চারজনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ * ইন্টারনেট দুনিয়ায় ঝড় তোলা মেয়েটি কে? * স্বখাতসলিলে বিএনপি নেতৃত্ব *
     05,2018 Monday at 08:00:08 Share

আদালত-সরকার দ্বন্দ্বে উত্তেজনা, কী ঘটতে যাচ্ছে মালদ্বীপে ?

আদালত-সরকার দ্বন্দ্বে উত্তেজনা, কী ঘটতে যাচ্ছে মালদ্বীপে ?

আদালত ও সরকার মুখোমুখি অবস্থান নেওয়ায় চরম উত্তেজনা চলছে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র মালদ্বীপে। সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহামেদ নাশিদের বিচার করাকে হাই কোর্টে শুক্রবার অবৈধ ঘোষণা এবং বিরোধী ১২ এমপিকে মুক্তি দেওয়ার আদেশ দিলে সরকারও পাল্টা পদক্ষেপে পার্লামেন্টের কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে। রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দিতে আদালতের আদেশ অমান্য করায় দেশটির সুপ্রিম কোর্ট প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনকে গ্রেফতার বা অভিশংসন করতে পারে বলে আশংকা করছে সরকার। সেই সঙ্গে প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিনকে গ্রেপ্তারে আদালতের যে কোনো পদক্ষেপ ঠেকাতে নিরাপত্তা বাহিনীকেও সরকার তপর করেছে। পুলিশ এবং সেনাবাহিনীও জোর দিয়ে বলছে, তারা এ আদেশ কার্যকর করবে না। এদিকে বিরোধী আইনপ্রণেতারা পার্লামেন্ট ভবন চত্বরে প্রবেশের চেষ্টা করায় সেনাবাহিনী ভবনটি ঘিরে রেখেছে।


বিরোধী দল মালদিভিয়ান ডেমোক্রেটিক পার্টির ১২ এমপিকে মুক্তি দেওয়ায় এখন তারাই পার্লামেন্টের সংখ্যাগরিষ্ঠ দল। ওই ১২ জনের মধ্যে নয়জন দেশে কারাবন্দি আছেন। বাকিরা স্বেচ্ছা নির্বাসনে চলে যান।


দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল মোহামেদ অনিল বলেন, প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করা বা গ্রেপ্তারের যে কোনো উদ্যোগ বেআইনি হবে। বিবিসি জানায়, অনিল প্রতিরক্ষা প্রধান জেনারেল শিয়াম ও ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার আব্দুল্লাহ নওয়াজকে নিয়ে গতকাল রোববার একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। সেখানে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, “আমরা এমন কিছু ঘটনা ঘটার ইঙ্গিত পেয়েছি, যা জাতীয় নিরাপত্তাকে সঙ্কটের মুখে ফেলে দেবে। ওই তথ্যানুযায়ী, খুব সম্ভবত সুপ্রিম কোর্ট প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করার বা অভিশংসনের নির্দেশ দিতে পারেন। যা অসাংবিধানিক হবে এবং সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এ ধরণের ঘটনা কিছুতেই ঘটতে দেবে না।”


টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা একটি অনুষ্ঠানে জ্যেষ্ঠ সেনা ও পুলিশ কর্মকর্তাদের তাদের প্রাণের বিনিময়ে হলেও সরকার রক্ষার শপথ নিতে দেখা যায় বলে জানায় বিবিসি। মালদিভিয়ান ডেমোক্রেটিক পার্টির মুখপাত্র হামিদ আব্দুল গফুর বলেন, “পুলিশ শনিবার রাতভর প্রধান বিচারপতিসহ সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ দুই বিচারককে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করেছে। তাদের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ আনা হয়েছে। সরকার অন্যায়ভাবে বিচারবিভাগের দখল নেওয়ার চেষ্টা করছে।”


এদিকে, সুপ্রিম কোর্টে খালাস পাওয়ার পর স্বেচ্ছা নির্বাসন ছেড়ে দেশে ফেরা মালদিভিয়ান ডেমোক্রেটিক পার্টির দুই নেতাকে রোববার বিমানবন্দর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার আব্দুল্লাহ সিনান ও ইলহাম আহমেদের বিরুদ্ধে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে বলে জানায় কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা। প্রসঙ্গত, সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে ২০১৫ সালে নাশিদকে ১৩ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আন্তর্জাতিক অঙ্গন ওই রায়ের তীব্র সমালোচনা করে এবং যুক্তরাজ্য নাশিদকে রাজনৈতিক আশ্রয় দেওয়ার প্রস্তাব দেয়। বর্তমানে শ্রীলঙ্কায় স্বেচ্ছা নির্বাসনে আছেন মালদ্বীপে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম প্রেসিডেন্ট নাশিদ। সুপ্রিম কোর্টের আদেশ না মানা ‘অভ্যূত্থানের সামিল’ বর্ণনা করে নাশিদ বলেন, প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের এখনই পদত্যাগ করা উচিত। তিনি মালদ্বীপের নিরাপত্তা বাহিনীকে সংবিধান সমুন্নত রাখার আহ্বানও জানান।


গত বৃহস্পতিবার মালদ্বীপের সুপ্রিম কোর্ট নাশিদ ও অন্যান্য বিরোধী দলের নেতাদের বিচার ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং অসাংবিধানিক’ বর্ণনা করে অবিলম্বে তাদের মুক্তি দিয়ে নিজ নিজ পদ পুনঃপ্রতিষ্ঠার নির্দেশ দেন।


এদিকে গতকাল সকালে পার্লামেন্টের সেক্রেটারি জেনারেল আহমেদ মোহামেদ সুনির্দিষ্ট কোন কারণ উল্লেখ না করেই পদত্যাগের ঘোষণা দেন। নিরাপত্তার কারণে চলতি বছরের প্রথম পার্লামেন্ট অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্যে স্থগিত করার পরই পার্লামেন্টের সেক্রেটারি জেনারেল পদত্যাগের এ ঘোষণা আসে। আজ সোমবার পার্লামেন্ট অধিবেশন শুরুর কথা ছিল। খবর বিডিনিউজ ও বাসসের।

User Comments

  • আন্তর্জাতিক