২৭ মার্চ ২০১৯ ৯:৩০:১৭
logo
logo banner
HeadLine
স্বাধীনতার ঘোষণা , বঙ্গবন্ধুর স্বকণ্ঠে * মুজিব কান্ট্রি হতে বাংলাদেশ * সেই কালরাত আজ, আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস হিসেবে পালনে জোর কূটনৈতিক তৎপরতা বাংলাদেশের * কিছু ফ্রাঙ্কেনস্টাইন শেখ হাসিনার অর্জনকে ধ্বংস করে দেবে, এদের রুখতে হবে - নাসিম * দৃষ্টির সীমা ছাড়িয়ে চলে গেলেন শাহ্‌নাজ রহমত উল্লাহ * বদলে যাচ্ছে বাংলাদেশ * বিশ্ব আবহাওয়া দিবস আজ * ওবায়দুল কাদের সম্পূর্ণ সুস্থ * উন্নয়নের কাজে মানুষের যেন ক্ষতি না হয় - প্রধাণমন্ত্রী * ভাসানচরে রোহিঙ্গা পুনর্বাসনকে স্বাগত জানালো ইউএনএইচসিআর * ওটি থেকে আইসিইউতে ওবায়দুল কাদের * মাথাপিছু আয় বেড়ে ১৯০৯ ডলার * আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত সকল পরীক্ষা তুলে দেওয়ার নির্দেশ * পদ্মাসেতুর রোডওয়েতে স্ল্যাব বসানোর কাজ শুরু, ২১ মার্চ বসছে নবম স্প্যান * ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি শুরু, দোয়া প্রার্থনা * নিউজিল্যান্ডের পর অস্ট্রেলিয়া ভ্রমণেও সতর্কতা জারি করল বাংলাদেশ * বাকশাল ছিলো সর্বোত্তম পন্থা, বাকশাল থাকলে নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন উঠতো না - প্রধানমন্ত্রী * নিউ জিল্যান্ডে ভ্রমণ সতর্কতা জারি করেছে বাংলাদেশ * নির্বাচন শেষে ফেরার পথে বাঘাইছড়িতে গুলিতে প্রিজাইডিং অফিসারসহ নিহত ৬ * '৩০ সেকেন্ড এদিক-ওদিক হলেই আমাদের লাশ দেশে ফিরতো' * বাংলাদেশের বিপ্লব, স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং জাতির পিতার নেতৃত্ব * যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী * বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * বাঙালির একমাত্র মহানায়ক * ক্রাইস্টচার্চে হামলায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক এবং নিন্দা, সারাদেশে নিরাপত্তা জোরদার * ক্রাইস্টচার্চে হামলায় ৩ বাংলাদেশীসহ নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ * বিশ্বজুড়ে ফেইসবুক ব্যবহারে সমস্যা হচ্ছে * একদিনে চার রকম কথা বললেন নুর * রোহিঙ্গাদের কোথায় রাখা হবে তা বাংলাদেশের নিজস্ব বিষয় * শিক্ষার জন্য শিশুদের অতিরিক্ত চাপ দেওয়া উচিত নয়: প্রধানমন্ত্রী *
     16,2018 Friday at 09:49:06 Share

লোভ দেখিয়ে রাখাইনে নেয়া হচ্ছে বান্দরবানের মারমা ও ম্রোদের

লোভ দেখিয়ে রাখাইনে নেয়া হচ্ছে বান্দরবানের মারমা ও ম্রোদের

লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসার পর পার্বত্য জেলা বান্দরবানের গহীন এলাকায় বসবাসরত মারমা ও ম্রো পরিবারের সদস্যদের প্রলোভনে ফেলে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে বান্দরবান থানছি উপজেলার বড় মোদক সীমান্তের লিদক্রে নামক স্থান থেকে চলতি মাসে এ পর্যন্ত ৩১ মারমা ও ম্রো পরিবারের শতাধিক সদস্য নিজ ভিটেমাটি ফেলে ওপারে চলে গেছে। রাখাইন রাজ্যে যাওয়ার পর তাদেরকে মিয়ানমার সরকার ৫ বছর পর্যন্ত বিনাশ্রমে খাদ্য সামগ্রী সরবরাহ, দোতলা বাড়িঘর ও ৫ একর করে জমি প্রদানের প্রলোভন দিয়েছে। পুরো বিষয়টি ইতোমধ্যে বান্দরবান জেলার আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায়ও আলোচিত হয়েছে।


এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে অনুরূপভাবে নিজ ভিটেমাটি ত্যাগ করে হেঁটে সীমান্তের ওপারে পাড়ি দেয়ার সময় মাইন বিস্ফোরণে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে ওই নিহতের স্ত্রী, ৫ পুত্র কন্যা। বুধবার রাতে আলি কদমের কুরুক্কপাতা ইউনিয়নের রালাইপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।


বৃহস্পতিবার সকালে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে নিহত উপজাতির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের ভর্তি করা হয়েছে স্থানীয় হাসপাতালে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সূত্রে জানা গেছে, নিহতের নাম পাওয়াই ম্রো (৪৫)। আহতরা হলেন নিহতের স্ত্রী চং রে ম্রো (৩৫), তাদের শিশু সন্তান সিতু ম্রো (৯), ইয়া ইয়ং ম্রো (৫), তনকো ম্রো (৩) ও তরংগং ম্রো (২)। বিজিবির বান্দরবান সেক্টর কমান্ডার কর্নেল ইকবাল হোসেন জানিয়েছেন, এলাকাটি খুবই দুর্গম হওয়ায় ঘটনার পর পরই নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। সকালে বিজিবি সদস্যরা এ মৃতদেহ উদ্ধার করে। আহতদের উদ্ধার করার পর সেখানকার কুরুক্কপাতা সেনাক্যাম্পে এনে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সেক্টর কমান্ডার আরও জানিয়েছেন, থানছি ও আলীকদম থেকে বেশকিছু পাহাড়ী উপজাতি পরিবার স্থানীয় একটি দালাল চক্রের প্রলোভনে গোপনে সীমান্ত পাড়ি দেয়ার চেষ্টায় রয়েছে। বিজিবির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে স্থানীয়দের সচেতনতা বৃদ্ধির চেষ্টা চালানো হচ্ছে।


স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দেশত্যাগকারী থোয়াই চিং কারবারি ও ক্যতয়াই মং মারমা, অং সাচিং মারমাসহ দেশত্যাগকারীরা জানিয়ে গেছেন, সীমান্তের ওপার থেকে তারা খবর পেয়েছেন, রাখাইন রাজ্যে পৌঁছুতে পারলে তাদেরকে বাড়িঘর, খাবারদাবার ও জমি প্রদানসহ সব ধরনের সুযোগ সুবিধা দেয়া হবে। এ কারণেই তারা দেশত্যাগ করেছেন। এছাড়া তারা যেখান থেকে দেশত্যাগ করছে সেখানে বিভিন্ন ধরনের অভাব রয়েছে। পাশাপাশি গত বছর জুম চাষ করে যে ধান তারা পেয়েছেন তার বড় অংশ দাদনদারকে দিতে হয়েছে। অং সাচিং মারমা ও থোয়াইচিং মারমা জানিয়ে গেছেন, চিম্বুক পাহাড় ধরে সিন্ধু হয়ে রাখাইনের বুচিদং ও মংডু শহরের দিকে গন্তব্য তাদের। স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গেছে, থোয়াই চিং পাড়া হয়ে চিম্বুক পাহাড় ধরে রাখাইন রাজ্যে পৌঁছতে সময় লাগে তিন দিন। থানছি উপজেলা সদর থেকে শঙ্খনদীর সংরক্ষিত বনাঞ্চলের লিদক্রে এলাকার থোয়াইচিং পর্যন্ত সরাসরি কোন সড়ক ব্যবস্থা নেই। নৌকাযোগে বা হেঁটে সেখানে যেতে হয়। রেমাক্রি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মারমা মাং চং ম্রো ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার বাওয়াই মারমা হোয়াইচিং পাড়ার ৯ পরিবারসহ তার ওয়ার্ড থেকে মোট ২১ মারমা পরিবার ম্রো তাং খোয়াইপাড়া থেকে ১০ পরিবারসহ ৩১ পরিবার দেশত্যাগের কথা স্বীকার করেছেন। তারা জানিয়েছেন, দেশত্যাগকারী পরিবারের মধ্যে বয়স্কভাতা, বিধবাভাতাভোগী, ভিজিবি কার্ডধারী ও ৪০ দিন কর্মসৃজনকারী সদস্য রয়েছেন। রেমাক্রি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুইশৈ থুই মারমা জানিয়েছেন, ৩১ পরিবার দেশত্যাগ করে সীমান্তের ওপারে চলে যাওয়ার কথা তিনি শুনেছেন। জনকন্ঠ।

User Comments

  • জাতীয়