২০ এপ্রিল ২০১৯ ০:৫৩:৪৩
logo
logo banner
HeadLine
শিরক এবং এর থেকে বেঁচে থাকার উপায় * দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় করণীয়গুলো ভালোভাবে প্রচারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * সন্দ্বীপ পৌরসভায় ১২৫ সেট সেনেটারী লেট্রিন বিতরণ * সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসাবে সেবাই আমাদের ব্রত- জাফর উল্যা টিটু * আজ ১৭ এপ্রিল : বাংলাদেশের প্রথম সরকারের শপথ গ্রহণ দিবস * ২১ এপ্রিলেই শবে বরাত * বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল ঘোষণা * চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ১০ বাস উপহার * নুসরাতকে পোড়ানোতে সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে নুর উদ্দিন ও শামীম * উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * আজ পহেলা বৈশাখ, শুভ নববর্ষ ১৪২৬ * নুসরাত হত্যা : পরিকল্পনায় সিরাজউদ্দৌলা, জড়িত ১৩,আগুন দেয় ৪ জন * চারদিনের সফরে ঢাকায় ভুটানের প্রধানমন্ত্রী, লালগালিচা সংবর্ধনা * ১২ এপ্রিল, ১৯৭১ : মুজিবনগর সরকারের মন্ত্রিসভার নাম ঘোষণা * মুজিববর্ষ ও বাঙালীর রাষ্ট্র দিবস * প্রথমবারের মতো কৃষ্ণগহ্বরের ছবি দেখলো মানব জাতি * তিন লাখ টাকা মুক্তিপনের জন্য ডেমরার মাদ্রাসাছাত্র শিশু মিনরকে হত্যা করে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ * গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী সেই নুসরাতকে বাঁচানো গেল না * বঙ্গবন্ধু ও সত্যবাদী আদর্শ * সবক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র পথ গবেষণা - প্রধানমন্ত্রী * চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে বিশ্বমানের হাসপাতাল * অগ্নিনিরাপত্তা নিয়ে শিগগিরই বৈঠক ডাকা হবে * ২২ বছর পর সেন্টমার্টিনে আবারও বিজিবি মোতায়েন * ২১ এপ্রিল পবিত্র শব-ই-বরাত * বিজিএমইএ নির্বাচনে পুরো প্যানেলসহ বিজয়ী রুবানা হক * খালেদার প্যারোলে মুক্তির আবেদন করলে ভেবে দেখা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী * সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন ওবায়দুল কাদের * সংঘাত নয় আলোচনার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে - প্রধানমন্ত্রী * সীতাকুন্ড, মিরসরাই ও সোনাগাজী অর্থনৈতিক অঞ্চল নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরের ভিত্তি স্থাপন * জহিরুল আলম দোভাষ সিডিএ'র নতুন চেয়ারম্যান *
     18,2018 Friday at 04:51:22 Share

স্বাগতম মাহে রমাজান

স্বাগতম মাহে রমাজান

আধ্যাপক মনিরুল ইসলাম রফিক ::  আলহামদুলিল্লাহ! আমরা আল্লাহ্তায়ালার রহমতে পবিত্র মাহে রমজানুল মোবারকের সিয়াম সাধনা শুরু করেছি। আকাশে বাঁকা চাঁদ মুচকি হাসার সঙ্গে সঙ্গেই মাহে রমজানের শুভাগমন ঘটল; শুরু হলো তারাবির সালাতের মাধ্যমে পবিত্র মাসকে বরণ করে নেয়া। হেলাল বা নয়া চাঁদ


ওঠার সঙ্গে সঙ্গে সকলেই দু’হাত তুলে আল্লাহ্তায়ালার কাছে আকুতি জানিয়েছে: আল্লাহুম্মা আহিল্লাহু বিল আমানি ওয়াল ইমান, ওয়াস্ সালামাতি ওয়াল ইসলাম (হে পরওয়ার দিগারে আলম! এ নয়া চাঁদকে আমাদের জন্য নিরাপত্তা এবং ইমানের প্রতীক বানাও আর শান্তি ও ইসলামের পতাকাতলে শামিল হওয়ার ওয়াসিলা বানাও)।


মুমিন মুসলমানের কাছে আজ এক পরম আনন্দ ও তৃপ্তির মুহূর্ত, তারা আজ এক মহা অনুভব ও ইবাদত উপভোগের পুত সায়রে সন্তরণ শুরু করেছে। তারা এ মাসকে নিজের জীবন নিষ্পাপ-পুণ্যময় করার সুযোগ হিসেবে গ্রহণ করে। তাই দেখা যায় মুসলিম সমাজের ঘরে ঘরে রমজানের সমাদর, রমজানের সম্মান ও মর্যাদা রক্ষার বিভিন্ন আয়োজন; এ মাসের মাহাত্ম্য, ফজিলত ও বরকত অর্জনের জন্য নানা আমল ও কর্মসূচী। ইতিহাসে আমরা দেখি সোনালি যুগের মুসলমানরা এ মাসকে যথাযথ ভাবগম্ভীর পরিবেশে অতিবাহিত করার জন্য রজব মাস থেকে প্রস্তুতি নিতেন এবং তারা রজব থেকে মাহে রমজান পর্যন্ত পুণ্য অর্জনের যে অবারিত ধারা প্রবাহিত হয় তা পাওয়ার জন্য খোদাতায়ালার কাছে ফরিয়াদ করতেন এই বলে : আল্লাহুম্মা বারিক লানা ফী রাজাবা ওয়া শাবান অর্থাৎ (হে আল্লাহ! আমাদেরকে পবিত্র রজব ও শাবান মাসে বরকত দান কর আর পবিত্র মাহে রমজান পর্যন্ত আমাদের পৌঁছে দাও)। তারা শাবান মাস থেকে অধিক পরিমাণে কোরান চর্চায় আত্মনিয়োগ করতেন, ধনীরা জাকাতের হিস্যা বের করে গরিবের মধ্যে বিতরণ শুরু করতেন। যাতে মাহে রমজানে সমাজে প্রত্যেকের অর্থনৈতিক অবস্থা ভাল থাকে এবং সিয়াম সাধনায় আত্মনিয়োগ করতে পারে। বস্তুত, শুধু ব্যক্তি মুসলমানের জীবনে নয়, গোটা সমাজ সংশোধনে, কৃচ্ছ্রতার মাস, সংযমের মাস রমজানের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অপরিসীম। কিন্তু আজ আমরা অতীত যুগের সোনার মানুষদের অনুসরণ করছি না বলেই সিয়ামের বরকত, রমজানের ফজিলত থেকে আমরা বঞ্চিত হচ্ছি। রমজানুল মোবারক উপলক্ষে কোরান ও হাদিসে যেসব বাণী এসেছে তা সত্যিই একজন মুমিনকে সৎপথে জীবন রচনার এক দুর্দমনীয় প্রতিযোগিতায় উদ্বেলিত করে তোলে। আল্লাহ্ সুবহানাহুতায়ালা তার পবিত্র আখেরি কালাম কোরান মাজীদে ইরশাদ করেছেন: শাহরু রামাদানাল লাযী উনযিলা ফীহিল কুরআন হুদাললিন্নাসি ওয়া বায়্যিনাত...।


অর্থাৎ ‘রমজান মাস হলো সেই মাস, যাতে নাজিল করা হয়েছে কোরান, যা মানুষের জন্য হিদায়াত এবং সত্য পথযাত্রীদের জন্য সুস্পষ্ট পথনির্দেশ আর ন্যায় ও অন্যায়ের মাঝে পার্থক্য বিধানকারী। কাজেই তোমাদের মধ্যে যে লোক এ মাসটি পাবে সে এ মাসে রোজা রাখবে। আর যে লোক অসুস্থ কিংবা মুসাফির অবস্থায় থাকবে সে অন্যদিনে গণনা পূর্ণ করবে। আল্লাহ্ তোমাদের জন্য সহজ করতে চান, তোমাদের জন্য জটিলতা কামনা করেন না; যাতে তোমরা গণনা পূর্ণ কর এবং তোমাদের হিদায়াত দান করার দরুন আল্লাহ্তায়ালার মহত্ত্ব বর্ণনা কর (আর) যাতে তোমরা কৃতজ্ঞতা স্বীকার কর।


শুরুর দিনে আমাদের প্রত্যাশা, মাহে রমজান হোক মুমিন-মুত্তাকিগণের দীনতা-হীনতা দূরীকরণের সাক্ষী, রমজান হোক সকলের আত্মোপলব্ধিরÑ খোশ আমদেদ, মাহে রমজান আহলান ওয়া সাহলান। আল্লাহুম্মা তাকাব্বাল সিয়ামানা ওয়া কিয়ামানা ওয়া রুকুআনা ওয়া সুজুদানা, ওয়া তিলা ওয়াতানা ওয়া তাসাবিহানা কামা তাকাব্বালতা মিন ইবাদিকাস সালিহীন: ওহে আল্লাহ! দয়া করে আমাদের রোজা, আমাদের নামাজকালাম, আমাদের রুকু, সিজদা, আমাদের তিলাওয়াত, তাসবিহ পূর্ববর্তী পুণ্যাত্মা মহান সৎকর্ম পরায়ণশীলদের ন্যায় কবুল কর। আমিন।

User Comments

  • ধর্ম ও নৈতিকতা