১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ ৩:৫৭:২৩
logo
logo banner
HeadLine
দ্রুতগতিতে চলছে ১০ মেগা প্রকল্প ও ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চলের নির্মাণকাজ * ভবিষ্যতে তরুণদের সুযোগ করে দিতে চাই - শেখ হাসিনা * একদিন আগেই শুরু হল বিশ্ব এজতেমা * ছয় দিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী আজ জার্মানি যাচ্ছেন * ২৮ দিনে জমির নামজারি , সর্বোচ্চ ৫৩ দিনে নক্সা অনুমোদন, ভবন নির্মাণে বীমা বাধ্যতামুলক * ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য উন্নত দেশ গড়তে চাই - প্রধানমন্ত্রী * ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি গ্রামবাসী সংঘর্ষ, নিহত চার * কর্ণফুলী টানেল : চট্টগ্রাম হবে ওয়ান সিটি টু টাউন * ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন * 'জয় বাংলা' মুক্তিযুদ্ধের স্লোগান, বীর বাঙালীর স্লোগান * সব হজযাত্রায় খরচ বেড়েছে * ডাকসু'র তফসিল আজ * অল্প জমি ও মাটি ছাড়া সবজি, ফুল, ফল উৎপাদনের প্রযুক্তিকে চাষী পর্যায়ে নিয়ে যান - কৃষিমন্ত্রী * আরও ১২২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর নাম ঘোষণা * রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ বাসস্থান চায় ঢাকা * হিন্দুকুশের বরফ দ্রুত গলছে : ভেসে যাবে দশ নদীর অববাহিকা , বিপন্ন হবে ২শ' কোটি লোক * উপজেলা নির্বাচনে ৮৭ চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল আওয়ামীলীগ, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীতা থাকবে উন্মুক্ত * জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের ঘোষনা * শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে আজ * দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার বাস্তবে রূপ দিতে হবে * সব ধরনের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে সরকারের নীতিমালা বৈধ: হাইকোর্ট * সন্দ্বীপ-চট্টগ্রাম ব্রিজ নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাই ও সন্দ্বীপে একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের আহবান জানালেন প্রধানমন্ত্রী * ২১ গুণীজনের ২১শে পদক লাভ * দুদকের ৩৩ মামলায় ৩৮৪ বছর কারাদণ্ড হয়েছিল নির্দোষ জাহালমের! * প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হবে - প্রধানমন্ত্রী * সব ধরনের মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করার তাগিদ দিলেন প্রধানমন্ত্রী * এবারের বিশ্ব ইজতেমা ৪ দিনে অনুষ্ঠিত হবে: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী * উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু * উপজেলা নির্বাচনের প্রথম দফা তফসিল আজ * আসছে ৫ লাখ কোটির বাজেট : নির্বাচনী ইশতেহার হচ্ছে মূল ভিত্তি , উদ্দেশ্য দারিদ্র্য বিমোচন, কর্মসংস্থান, সামাজিক সুরক্ষা এবং বিনিয়োগে আকৃষ্ট করা *
     07,2018 Thursday at 08:59:04 Share

নারী এশিয়া কাপ টি২০তে ৬ বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকেও হারাল বাংলাদেশ

নারী এশিয়া কাপ টি২০তে ৬ বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকেও হারাল বাংলাদেশ

নারী এশিয়া কাপ টি২০ ক্রিকেটে টানা জিতেই চলেছে বাংলাদেশ। শক্তিশালী দলগুলোকে হারিয়ে চলেছে। এবার রুমানা আহমেদের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ছয়বারের এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন ভারতের মতো দলকে হারিয়ে দিয়েছে। বুধবার ৭ উইকেটে ভারতকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। রুমানা বল হাতে ৩ উইকেট নিয়েছেন। ব্যাট হাতে অপরাজিত ৪২ রান করে ম্যাচ জিতিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন।


ভারতকে এর আগে কখনই হারাতে পারেনি বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। না টি২০ । না ওয়ানডেতে। কোন ফরমেটেই ভারতকে মাত করতে পারেনি। এবার এশিয়া কাপে ভারতকে হারিয়ে দিয়েছে। ভারতকে হারানোর আগে পাকিস্তানকেও ৭ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার কাছে নিজেদের প্রথম ম্যাচে শুধু হারে সালাম খাতুনের দল বাংলাদেশ।


মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের কিনরারা একাডেমি ওভালে টস জেতে ভারত প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করে। রুমানা কি দুর্দান্ত বোলিং করেন। ৪ ওভারে ২১ রান দিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেন। জবাব দিতে নেমে ফারজানা ও রুমানার ৯৩ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে ভর দিয়ে জিতে যায় বাংলাদেশ। ফারজানার হাফসেঞ্চুরি (৫২*) ও রুমানার অপরাজিত ৪২ রানের ইনিংসে ৩ উইকেট হারিয়ে ২ বল হাতে রেখে ১৪২ রান করে ম্যাচ জিতে বাংলাদেশ। ভারতকে প্রথমবারের মতো হারায়। এটা টি২০তে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সংগ্রহও। ভারতের বিপক্ষে রেকর্ড গড়ে জেতার দিনে ভারতকে প্রথমবারের মতো হারানোর স্মৃতিও যুক্ত হয় বাংলাদেশ শিবিরে।


বাংলাদেশ অধিনায়ক সালমা খাতুন যে এশিয়া কাপের ফাইনালে খেলার স্বপ্ন দেখছেন, তা পূরণও হয়ে যেতে পারে। বড় তিন শক্তিশালী দল ভারত, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের বাধা যে শেষ। সামনে আজ থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ও ৯ জুন স্বাগতিক মালয়েশিয়ার বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ। যদি পয়েন্ট তালিকায় সেরা দুই দলের একটি হতে পারে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল তাহলে ফাইনালে খেলবে।


অধিনায়ক সালমা খাতুন দেশ ছাড়ার আগে ফাইনালে খেলার স্বপ্নের কথা জানিয়েছিলেন। বলেছিলেন, ‘এশিয়া কাপে আমাদের প্রথম লক্ষ্য ভাল খেলা। যদি আমরা ভাল খেলতে পারি, নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলতে পারি, তাহলে যে কোন দলকেই হারানো সম্ভব। যদি ম্যাচের ফল আমাদের পক্ষে নিয়ে আসতে পারি তাহলে অবশ্যই ফাইনালে খেলা সম্ভব।’ নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী খেলে এরই মধ্যে পাকিস্তান ও ভারতকে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ। পয়েন্ট তালিকায় চার নম্বর অবস্থানে থাকলেও ভারত, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তানের সমান ৪ পয়েন্ট পেয়েছে বাংলাদেশও। সামনে দুই প্রতিপক্ষকে হারাতে পারলে পয়েন্ট তালিকায় ৮ পয়েন্ট যুক্ত হবে। ফাইনালে খেলার সম্ভাবনাও থাকছে।


ভারত বরাবরই এশিয়া কাপে সেরা দল। এ নিয়ে নারী এশিয়া কাপ হচ্ছে সপ্তমবার। আগের ছয়বারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত। ২০০৪ সাল থেকে হচ্ছে এ টুর্নামেন্ট। প্রথম চারবার হয়েছে ওয়ানডে ফরমেটে। ২০১২ সাল থেকে টি২০ ফরমেটে হচ্ছে টুর্নামেন্ট। দুইবার হয়ে গেছে। এবার তৃতীয়বারের মতো টি২০ ফরমেটে হচ্ছে টুর্নামেন্ট। ভারত প্রতিবারই চ্যাম্পিয়ন দল। এই দলটির বিপক্ষেই কিনা জিতে গেছে বাংলাদেশ।


ভারতের বিপক্ষে এর আগে ৯টি টি২০ ও ৪টি ওয়ানডে খেলে একবারও জিততে পারেনি বাংলাদেশ। প্রতিটিতেই হারে। সবকটিতে বড় ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। এবার জিতে যায়।


নারীদের এশিয়া কাপ শুরু হয় ২০০৪ সালে। ২০০৪, ২০০৫ ও ২০০৬ সালে বাংলাদেশ নারী দল অংশ নেয়নি। প্রথম তিনবার খেলেনি। ২০০৮ সালে প্রথমবার অংশ নিয়ে পাকিস্তানকে হারায়। ২০০৮ সালের এশিয়া কাপ পর্যন্ত ওয়ানডে ফরমেটে খেলা হয়। এরপর ২০১২ সালের টুর্নামেন্ট থেকে এশিয়া কাপ টি২০ ফরমেটে হচ্ছে। প্রথম টি২০ এশিয়া কাপেই বাংলাদেশ সেমিফাইনালে খেলে। প্রথমবার গ্রুপপর্বে খেলা হওয়ার পর সেমিফাইনাল থাকলেও দ্বিতীয় আসরে লীগপর্ব হয়। বাংলাদেশ দুটি ম্যাচ জিতেই সন্তুষ্ট থাকে। এবার প্রথম তিন ম্যাচের মধ্যেই দুটিতে জিতে গেছে। ভারতের মতো শক্তিশালী দলকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। জনকন্ঠ। 

User Comments

  • খেলাধুলা