২০ এপ্রিল ২০১৯ ১:১৮:১৮
logo
logo banner
HeadLine
শিরক এবং এর থেকে বেঁচে থাকার উপায় * দুর্যোগ-দুর্ঘটনায় করণীয়গুলো ভালোভাবে প্রচারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর * সন্দ্বীপ পৌরসভায় ১২৫ সেট সেনেটারী লেট্রিন বিতরণ * সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসাবে সেবাই আমাদের ব্রত- জাফর উল্যা টিটু * আজ ১৭ এপ্রিল : বাংলাদেশের প্রথম সরকারের শপথ গ্রহণ দিবস * ২১ এপ্রিলেই শবে বরাত * বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দল ঘোষণা * চট্টগ্রামের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ১০ বাস উপহার * নুসরাতকে পোড়ানোতে সরাসরি জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে নুর উদ্দিন ও শামীম * উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়তে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * আজ পহেলা বৈশাখ, শুভ নববর্ষ ১৪২৬ * নুসরাত হত্যা : পরিকল্পনায় সিরাজউদ্দৌলা, জড়িত ১৩,আগুন দেয় ৪ জন * চারদিনের সফরে ঢাকায় ভুটানের প্রধানমন্ত্রী, লালগালিচা সংবর্ধনা * ১২ এপ্রিল, ১৯৭১ : মুজিবনগর সরকারের মন্ত্রিসভার নাম ঘোষণা * মুজিববর্ষ ও বাঙালীর রাষ্ট্র দিবস * প্রথমবারের মতো কৃষ্ণগহ্বরের ছবি দেখলো মানব জাতি * তিন লাখ টাকা মুক্তিপনের জন্য ডেমরার মাদ্রাসাছাত্র শিশু মিনরকে হত্যা করে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ * গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়া সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী সেই নুসরাতকে বাঁচানো গেল না * বঙ্গবন্ধু ও সত্যবাদী আদর্শ * সবক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার একমাত্র পথ গবেষণা - প্রধানমন্ত্রী * চট্টগ্রামে চালু হচ্ছে বিশ্বমানের হাসপাতাল * অগ্নিনিরাপত্তা নিয়ে শিগগিরই বৈঠক ডাকা হবে * ২২ বছর পর সেন্টমার্টিনে আবারও বিজিবি মোতায়েন * ২১ এপ্রিল পবিত্র শব-ই-বরাত * বিজিএমইএ নির্বাচনে পুরো প্যানেলসহ বিজয়ী রুবানা হক * খালেদার প্যারোলে মুক্তির আবেদন করলে ভেবে দেখা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী * সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন ওবায়দুল কাদের * সংঘাত নয় আলোচনার মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে - প্রধানমন্ত্রী * সীতাকুন্ড, মিরসরাই ও সোনাগাজী অর্থনৈতিক অঞ্চল নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরের ভিত্তি স্থাপন * জহিরুল আলম দোভাষ সিডিএ'র নতুন চেয়ারম্যান *
     26,2018 Thursday at 20:04:41 Share

'নদীতে ফেলে দেওয়ার পরও জীবিত ছিল পায়েল, হাসপাতালে নিলে বাঁচানো যেতো'- মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার

'নদীতে ফেলে দেওয়ার পরও জীবিত ছিল পায়েল, হাসপাতালে নিলে বাঁচানো যেতো'- মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার

তড়িঘড়ি করে উঠতে গিয়ে বাসের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে আহত হওয়া নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাইদুর রহমান পায়েলকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে বাঁচানো যেতো বলে জানিয়েছেন মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. জায়েদুল আলম।


বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান মো. জায়েদুল আলম। তিনি বলেন, ‘রবিবার (২১ জুলাই) দিনগত রাত ৪টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ভাটেরচর ব্রিজের কাছে যানজটে পড়ে বাস। এ সময় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাস থেকে নিচে নামেন পায়েল। এরমধ্যেই যানজট কিছুটা ছাড়লে বাস এগোতে থাকে। পায়েল দৌড়ে এসে বাসে উঠতে গিয়ে নাকেমুখে আঘাত পান। সঙ্গে সঙ্গে পড়ে যান রাস্তায়। এ পর্যায়ে আহত পায়েলকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার বদলে মৃত ভেবে ভবেরচর ব্রিজ থেকে খালে ফেলে দেয় বাসটির চালক, সুপারভাইজার ও চালকের সহকারী। কিন্তু এ সময় যদি পায়েলকে স্থানীয় কোনও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হতো, তবে তাকে বাঁচানো যেতো।’


জায়েদুল আলম আরও বলেন, ‘ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন বলছে, খালে ফেলে দেওয়ার পরও পায়েল জীবিত ছিলেন। কারণ, তার পেটে প্রচুর পরিমাণ পানি ছিল।’


পুলিশ সুপার জানান, গত ২১ জুলাই রাত ১০টা ১৫ মিনিটের দিকে দুই বন্ধু মো. মহিউদ্দিন শান্ত (২২) ও হাকিমুর রহমান আদরের (২২) সঙ্গে চট্টগ্রাম থেকে হানিফ পরিবহনের একটি বাসে (ঢাকা মেট্রো-ব-৯৬৮৭) টাকার উদ্দেশে রওনা দেন পায়েল। পায়েল বাস থেকে নামার সময় তার এক বন্ধু পাশের সিটে ঘুমিয়ে ছিলেন ও অন্য বন্ধুও ঘুমিয়ে ছিলেন বাসের শেষের দিকের এক সিটে।


গত সোমবার (২৩ জুলাই) সকালে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার ভবেরচর খাল থেকে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার হরিশপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা ও বর্তমানে চট্টগ্রামের হালিশহরের বাসিন্দা কাতার প্রবাসী গোলাম মাওলার ছেলে সাইদুর রহমান পায়েলের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পরদিন মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) বাসচালক জামাল হোসেন (৩৫) ও বাসের হেলপার ফয়সাল হোসেন (৩০) ও সুপারভাইজার জনিকে (৩৮) গ্রেফতার করা হয়। বুধবার সুপারভাইজার জনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। এর আগে মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) পায়েলের মামা গোলাম সরওয়ার্দী বিপ্লব বাদী হয়ে গজারিয়া থানায় বাসচালক জামাল, সুপারভাইজার জনি ও হেলপার ফয়সালকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।


প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেন, ‘গ্রেফতার বাসচালক জামাল ও হেলপার ফয়সাল সম্পর্কে আপন ভাই। পায়েল হত্যার ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

User Comments

  • সন্দ্বীপ প্রতিদিন