১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ৬:২১:১৩
logo
logo banner
HeadLine
সাইফুল আলম সভাপতি ও ফরিদা ইয়াসমিন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত * সারা দেশে ১ হাজার ১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন * নিজের ও সরকারের ভুলভ্রান্তি ক্ষমা করে আবারও নৌকায় ভোট দেয়ার আহবান জানিয়ে আওয়ামীলীগের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা করলেন শেখ হাসিনা * বিজয়ের অকথিত অজানা অধ্যায় * ওরা কোন মুখে ভোট চায় ? জনগণ নীতিভ্রষ্টদের প্রত্যাখ্যান করবে - প্রধানমন্ত্রী * বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘুর্ণিঝড় 'পিখাই' এগিয়ে যাচ্ছে ভারতের অন্ধ্র উপকুলের দিকে, সাগর উত্তাল * ড. কামালের 'খামোশ' কাহিনী * 'খামোশ' বাংলাদেশ বিরোধীরা * মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * ভোটকক্ষে মোবাইল ফোন ও সরাসরি সম্প্রচার নিষিদ্ধ, সম্প্রচার করা যাবে কেন্দ্র থেকে * উন্নয়নের বিশ্বস্বীকৃতি : দারিদ্র্য জয় করে ৪৭ বছরে বিস্ময়কর অর্জন ,বিধ্বস্ত অর্থনীতি নিয়ে একাত্তরে স্বাধীন বাংলাদেশের যাত্রা শুরু, বিদেশী সাহায্য ও ঋণনির্ভরতা কাটিয়ে স্বনির্ভর, ১৯৭২-৭৩ অর্থবছরের মাত্র ৩৪ কোটি মার্কিন ডলারের রফতানি আয় গত অর্থবছরে ৩ হাজার ৬শ'কোটি ডলার ছাড়িয়েছে * ড. কামালের বিরুদ্ধে ইবি শিক্ষকের মামলা, তিনি নিজের নিজের স্বরূপ ঢাকতে পারেননি-বললেন কাদের * খামোশ বললেই মানুষের মুখ বন্ধ হবে না: প্রধানমন্ত্রী * টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজও টাইগারদের * তারেক রহমানের মনোনয়ন বাণিজ্য * জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * আবারও ক্ষমতায় আসবে আওয়ামীলীগ: ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স * ২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনাবাহিনী, প্রতিটি টিমের সাথে থাকবেন ম্যাজিস্ট্রেটও * আসন্ন নির্বাচন এবং সৎ সাংবাদিকতার দায়িত্ব * ৫৮ নয়, ৫৪টি নিউজ পোর্টাল ও লিংক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি * একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : মোট প্রার্থী ১৮৪১, দলীয় ১৭৪৫, স্বতন্ত্র ৯৬ * বঙ্গবন্ধুর কবর জিয়ারত করেই কাল থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচারে নামছে আওয়ামী লীগ * একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ নিয়ে লড়বেন যারা * প্রতিক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু হচ্ছে আজ * টেস্টের পর ওয়ানডেতেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দাপুটে জয় দিয়ে শুরু করল টাইগাররা * বিএনপি ২৪২ অন্যদের ৫৮ * আওয়ামীলীগ ২৫৮, জাপা ২৬টিতে জোটগত ১৩২টিতে উন্মুক্ত, মহাজোটের অন্যান্য শরিকরা ১৬টিতে লড়বেন * প্রার্থিতা প্রত্যাহার শেষ হচ্ছে আজ * বাংলাদেশ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সক্ষম - চীনা রাষ্ট্রদূত * মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগে বিএনপির পল্টন, গুলশান অফিসে হামলা ও তালা মেরে দিল বঞ্চিতরা *
     09,2018 Sunday at 08:30:00 Share

ইলিশের পূর্ণাঙ্গ জীবনরহস্য আবিষ্কার

ইলিশের পূর্ণাঙ্গ জীবনরহস্য আবিষ্কার

ইলিশের ভৌগোলিক স্বীকৃতি বা জিআই পাওয়ার পর দেশীয় ইলিশের রেফারেন্স জিনোম প্রস্তুতকরণ, জিনোমিক ডাটাবেজ স্থাপন এবং মোট জিনের সংখ্যা নির্ণয় করার জন্য গবেষণা শুরু করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) একদল গবেষক। তারই ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ বায়োলজি এ্যান্ড জেনেটিক্স বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ সামছুল আলমের নেতৃত্বে বিশ্বে প্রথমবারের মতো উন্মোচিত হয়েছে ইলিশ মাছের পূর্ণাঙ্গ জীবন রহস্য। শনিবার সকাল ৯টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান, পূর্ণাঙ্গ ইলিশ জিনোম সিকোয়েন্সিং ও এ্যাসেম্বলি টিমের সমন্বয়ক ফিশারিজ বায়োলজি এ্যান্ড জেনেটিক্স বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ সামছুল আলম।


অধ্যাপক ড. মোঃ সামছুল আলম বলেন, জিনোম হচ্ছে কোন জীবের পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান। জীবের জন্ম, বৃদ্ধি, প্রজনন এবং পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়াসহ সকল জৈবিক কার্যক্রম পরিচালিত হয় জিনোম দ্বারা। ইলিশের জিনোমে ৭৬ লাখ ৮০ হাজার নিউক্লিওটাইড রয়েছে যা মানুষের জিনোমের প্রায় এক চতুর্থাংশ। ইলিশের পূর্ণাঙ্গ জিনোম সিকোয়েন্স জানার মাধ্যমে অসংখ্য অজানা প্রশ্নের উত্তর জানা যাবে সহজেই। বাংলাদেশের জলসীমার মধ্যে ইলিশের স্টকের সংখ্যা (একটি এলাকায় মাছের বিস্তৃতির পরিসীমা) কতটি এবং দেশের পদ্মা, মেঘনা নদীর মোহনায় প্রজননকারী ইলিশগুলো ভিন্ন ভিন্ন স্টক কি না তা জানা যাবে এই জিনোম সিকোয়েন্সর মাধ্যমে। বছরে দুইবার ইলিশ প্রজনন করে থাকে। জিনোম সিকোয়েন্সের মাধ্যমে এই দুই সময়ের ইলিশ জীনগতভাবে পৃথক কি না তা জানা যাবে। এমনকি কোন নির্দিষ্ট নদীতে জন্ম নেয়া পোনা সাগরে যাওয়ার পর বড় হয়ে প্রজননের জন্য আবার একই নদীতেই ফিরে আসে কি না সেসব তথ্যও জানা যাবে এই জিনোম সিকোয়েন্সের মাধ্যমে।


তিনি আরও বলেন, এ রকম নতুন নতুন তথ্য উন্মোচনের মাধ্যমে নিশ্চিত করা যাবে ইলিশের টেকসই আহরণ। ইলিশের জন্য দেশের কোথায় কোথায় ও কতটি অভয়াশ্রম প্রতিষ্ঠা করা প্রয়োজন তা নির্ধারণ করা সহজ হবে। দেশীয় ইলিশ পৃথিবীর অন্যান্য দেশের (ভারত, মিয়ানমার, পাকিস্তান, মধ্যপ্রাচ্য) ইলিশ থেকে জীনতাত্ত্বিকভাবে স্বতন্ত্র কি না তাও নিশ্চত হওয়া যাবে।


২০১৫ সালের ডিসেম্বরে কাজ শুরু করেন তারা। ২০১৭ সালের ৩১ জুলাই ইলিশের পূর্ণাঙ্গ ডি-নোভো জিনোম এ্যাসেম্বলি প্রস্তুত হয়। ওই বছরের ২৫ আগস্ট ইলিশের সম্পূর্ণ জিনোম সিকোয়েন্স আন্তর্জাতিক জিনোম ডেটাবেজ ‘ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশনে’ (এনসিবিআই) জমা করা হয়। এছাড়াও ইলিশের জিনোম বিষয়ে গবেষণালব্ধ ফলাফল দুইটি আন্তর্জাতিক কনফারেন্সেও উপস্থাপন করা হয়েছে।


পূর্ণাঙ্গ ইলিশ জিনোম সিকোয়েন্সিং ও এ্যাসেম্বলি টিমের সমন্বয়ক অধ্যাপক ড. মোঃ সামছুল আলম এবং সদস্য হিসেবে ছিলেন পোল্ট্রি বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ বজলুর রহমান মোল্যা, বায়োটেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ শহিদুল ইসলাম ও ফিশারিজ বায়োলজি এ্যান্ড জেনেটিক্স বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ গোলাম কাদের খান।


জাতীয় মাছ ইলিশের পূর্ণাঙ্গ জিনোম সিকোয়েন্সিং-এর গবেষণা কাজটি গবেষকবৃন্দের নিজস্ব উদ্যোগ, শ্রম এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পারস্পারিক সহযোগিতার ভিত্তিতে সম্পন্ন করা হয়েছে। এ গবেষণার মাধ্যমে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলদেশের মৎস্য সেক্টর পূর্ণাঙ্গ জিনোম গবেষণার যুগে প্রবেশ করেছে বলে আশা ব্যক্ত করেছেন গবেষকরা।

User Comments

  • বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি