১৫ নভেম্বর ২০১৮ ১৭:১:৩৫
logo
logo banner
HeadLine
সম্প্রচার কমিশন গঠনে আইনের খসড়া অনুমোদন * ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনসহ সাত দফা দাবি সম্পাদক পরিষদের * ভ্রুন হত্যা বন্ধে জিরো টলারেন্স ও হত্যাকারীদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনার কড়া নির্দেশ, তদন্তে গড়িমসি করলে শাস্তি * অসহায় বিএনপির ঐক্য প্রক্রিয়াই শেষ ভরসা * কামালের নেতৃত্বে ঐক্য বিএনপি-জামাতের রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্র : মান্না-মাহি চৌধুরীর ফোনালাপ ফাঁস * খুনীদের সঙ্গে ঐক্য করেছেন ড. কামাল হোসেন গং, - পদ্মাসেতু র কর্মযজ্ঞ দেখতে গিয়ে আয়োজিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী * দেশে মোট ভোটার ১০ কোটি ৪১ লাখ ৯০ হাজার ৪৮০ * সেতুর নামফলক উন্মোচন ও রেলসংযোগ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করতে আজ পদ্মাসেতু এলাকায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী * বৃষ্টি আর জোয়ারে চট্টগ্রামের নিচু এলাকায় জলাবদ্ধতা * পাহাড় ও দেয়াল ধ্বসে চট্টগ্রামে নিহত ২ * বি চৌধুরীকে বাদ দিয়ে বিএনপির সঙ্গে নিয়ে কামাল-মান্নার জোট * সমুদ্রবন্দরসমূহে ৩ নং সতর্ক সংকেত বহাল, দমকা ও ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস * বাংলাদেশ জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত * সেনাপ্রধান সম্পর্কে স্মরণকালের ভয়াবহ আজগুবি মিথ্যা তথ্য হাজির করেছেন বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী * বিশ্ব জুড়ে আগামী ৪৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকতে পারে ইন্টারনেট * বৃষ্টিসহ দমকা ও ঝড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা, ৩ নং সতর্ক সংকেত * তফসিলের প্রস্তাব নিয়ে বঙ্গভবনে যাচ্ছে ইসি * ৮০ ভাগ ট্যাপের পানিতে ক্ষতিকর ই-কোলাই ব্যাক্টেরিয়া * আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তি, ৩ নং সতর্ক সংকেত * ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছে তিতলি, বন্দরসমূহে সংকেত কমিয়ে ৩ * ড. কামাল এখন তারেকের গডফাদার * জনপ্রিয়রাই পাচ্ছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন, বাদ পড়বে অর্ধশত মন্ত্রী-এমপি * ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টারমাইন্ড হিসেবে তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি * উড়িষ্যা ও অন্ধ্র উপকূল অতিক্রম করতে শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড় 'তিতলি * ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় : বাবর পিন্টুসহ ১৯ জনের মৃত্যুদন্ড, তারেক হারিচসহ ১৭ জনের যাবজ্জীবন * আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তি, ঘূর্ণিঝড় 'তিতলি' র প্রভাবে সমুদ্র বন্দরে ৪ নম্বর সর্তকতা * ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় আজ * ঘূর্ণিঝড় 'তিতলি'র প্রভাবে সাগর উত্তাল, ২ নং দূরবর্তী হুঁশিয়ারী সংকেত * একুশ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় কাল * কার্যকর হচ্ছে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ ৬টি বিল, রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর *
     27,2018 Thursday at 06:16:34 Share

দুর্দান্ত খেলে পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপ ফাইনালে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত খেলে পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপ ফাইনালে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত খেলে এশিয়া কাপ ক্রিকেটের ফাইনালে পৌঁছে গেল বাংলাদেশ। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারের একবল বাকী থাকতে ২৩৯ রানে থেমে যায় টাইগারদের ইনিংস।  জয়ের জন্য ২৪০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২০২ রান করে পাকিস্তান। ফলে ৩৭ রানের জয় পেয়ে টানা দ্বীতিয়বার ফাইনাল খেলার আনন্দে মেতে উঠে ম্যাশবাহিনী।
সবশেষ ২০১৬ সালের আসরেও ফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ। তবে টুর্নামেন্টটা ছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সব মিলিয়ে মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসরে তৃতীয়বার ফাইনালে উঠলো টাইগাররা। ২০১২ সালের ফাইনালে খেলেছিল ওয়ানডে ফরম্যাটে। ঘরের মাঠে সেবার যাদের বিপক্ষে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল সাকিব-মুশফিকদের, সেই পাকিস্তানকে হারিয়েই এবার শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে উঠলো তারা। শুক্রবারের ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত।
ব্যাটিংয়ে সংগ্রহটা বড় করতে না পারায় বোলিংয়ে শুরুটা ভালো হওয়া দরকার ছিল বাংলাদেশের। মোস্তাফিজুর রহমানের সৌজন্যে সেটা পেয়ে যায় তারা। এই পেসারের জোড়া উইকেটের সঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজের আঘাতে ১৮ রানে পাকিস্তান হারায় ৩ উইকেট। ওই ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করেছিল ইমাম-উল-হক ও শোয়েব মালিক।
তবে দিনটা ছিল বাংলাদেশের। তাই ফর্মে থাকা মালিক (৩০) বেশিদূর যেতে পারেননি। ইমাম চমৎকার ইনিংস খেললেও অন্যপ্রান্তে উইকেট উৎসব করেছে বাংলাদেশ। যে উৎসবটা সবচেয়ে বেশি করেছেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি এই পেসার শুরুতে ধস নামনোর পর ৪৩ রানে পেয়েছেন ৪ উইকেট। দুটি উইকেট শিকার মিরাজের।
পাকিস্তানের পক্ষে প্রতিরোধ গড়েছিলেন ইমাম-উল-হক। সতীর্থদের ব্যর্থতার দিনে ঠাণ্ডা মাথায় ইনিংস গড়েছেন এই ওপেনার। তবে দলকে জেতাতে পারেননি তিনি। তার বিদায়ে পাকিস্তান হারায় ৭ উইকেট।
একপ্রান্ত আগলে রেখে পাকিস্তানকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন ইমাম। ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশকে অস্বস্তিতে রেখেছিলেন এই ওপেনার। মাহমুদউল্লাহ বলে দূর হয় সেই অস্বস্তি। এই স্পিনারের বল ক্রিজ ছেড়ে এসে মারতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন তিনি। আউট হওয়ার আগে খেলে যান ৮৩ রানের চমৎকার ইনিংস। ১০৫ বলের কার্যকরী ইনিংসটি তিনি সাজান ২ চার ও ১ ছক্কায়।
এদিকে লিটন দাস ক্যাচটা নিতে পারলে আগেই শেষ হয়ে যেত আসিফ আলীর ইনিংসটি। সেই ভুলটাই শুধরে নিলেন এই উইকেটরক্ষক। চমৎকার স্টাম্পিংয়ে আসিফকে ফিরিয়েছেন লিটন। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে এগিয়ে এসে খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যান আসিফ। তার আগে ৪৭ বলে খেলেন কার্যকরী ৩১ রানের ইনিংস।
শোয়েব মালিকের বিদায়ে বড় ধাক্কা খায় পাকিস্তান। সেই ধাক্কাটা আরও জোরে লাগে খানিক পর শাদাব খান প্যাভিলিয়নের পথ ধরলে। সৌম্য সরকারের বলে মাত্র ৪ রান করে আউট হয়ে গেছেন তিনি। ব্যাট হাতে একেবারেই ব্যর্থ হওয়া সৌম্য বোলিংয়ে পেয়েছেন সাফল্য। তার বাউন্সার পুল করতে গিয়ে শাদাব ধরা পড়েন বদলি উইকেটরক্ষক লিটন দাসের গ্ল্যাভসে। বাজপাখির মতো ছোঁ মেরে তালুবন্দি করলেন বল, এরপর দাঁড়িয়ে উদযাপন করলেন উইকেট। মাশরাফির দাম্ভিক উদযাপনটা সত্যিই মানায়, উইকেটটা যে শোয়েব মালিকের। এর ওপর আবার ফর্মে থাকা পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানের ক্যাচটা নিলেন তিনি যেভাবে।
ইমাম-উল-হক ও মালিকের জুটিতে প্রতিরোধটা ভালোই গড়েছিল পাকিস্তান। রুবেল হোসেনের বলে ভাঙল সেই প্রতিরোধ। এই পেসারের বল মিড উইকেট দিয়ে খেলতে গিয়ে মালিক ধরা পড়েন মাশরাফির হাতে। সুপারম্যানের মতো উড়ে বল তালুবন্দি করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে মালিক ৫১ বলে করেন ৩০ রান।
বোলিংয়ে দারুণ শুরু হলো বাংলাদেশের। মোস্তাফিজুর রহমান তার টানা দুই ওভারে দুটি উইকেট নিয়েছেন। এশিয়া কাপ সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে মাত্র ১৮ রানে পাকিস্তানের ৩ উইকেট নেই। প্রথম ওভারেই পাকিস্তানের উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বাংলাদেশি স্পিনার তার পঞ্চম বলে মিড অনে ফখর জামানকে (১) রুবেল হোসেনের ক্যাচ বানান। পরের ওভারে মোস্তাফিজ তার দ্বিতীয় বলে বাবর আজমকে (১) এলবিডাব্লিউ করেন। বাঁহাতি এই পেসার তার দ্বিতীয় ওভারে অফ কাটারে সরফরাজ আহমেদকে ১০ রানে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানান।
বাংলাদেশকে উদ্ধার করলেও আক্ষেপ থেকে গেল মুশফিকুর রহিমের। মাত্র ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি হলো না তার। সপ্তম সেঞ্চুরি থেকে হাতছোঁয়া দূরত্বে বিদায় নিলেও পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়াই করার মতো স্কোর এনে দিয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপ ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সাবেক চ্যাম্পিয়নদের ২৪০ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ।
টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ১২ রানে ৩ উইকেট হারালে মুশফিকের সঙ্গে মোহাম্মদ মিঠুনের একশ ছাড়ানো জুটিতে ২৩৯ রান করে বাংলাদেশ। মুশফিকের ৯৯ ও মিঠুনের ৬০ রানের ইনিংসই এই স্কোরের ভিত গড়ে দেয়। ৪৮.৫ ওভারে সব উইকেট হারায় বাংলাদেশ।
জুনাইদ খান ৪ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের সবচেয়ে সফল বোলার। দুটি করে নেন শাহীন শাহ আফ্রিদি ও হাসান আলী।

User Comments

  • খেলাধুলা