১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ৫:৫৮:০১
logo
logo banner
HeadLine
সাইফুল আলম সভাপতি ও ফরিদা ইয়াসমিন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত * সারা দেশে ১ হাজার ১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন * নিজের ও সরকারের ভুলভ্রান্তি ক্ষমা করে আবারও নৌকায় ভোট দেয়ার আহবান জানিয়ে আওয়ামীলীগের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা করলেন শেখ হাসিনা * বিজয়ের অকথিত অজানা অধ্যায় * ওরা কোন মুখে ভোট চায় ? জনগণ নীতিভ্রষ্টদের প্রত্যাখ্যান করবে - প্রধানমন্ত্রী * বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘুর্ণিঝড় 'পিখাই' এগিয়ে যাচ্ছে ভারতের অন্ধ্র উপকুলের দিকে, সাগর উত্তাল * ড. কামালের 'খামোশ' কাহিনী * 'খামোশ' বাংলাদেশ বিরোধীরা * মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * ভোটকক্ষে মোবাইল ফোন ও সরাসরি সম্প্রচার নিষিদ্ধ, সম্প্রচার করা যাবে কেন্দ্র থেকে * উন্নয়নের বিশ্বস্বীকৃতি : দারিদ্র্য জয় করে ৪৭ বছরে বিস্ময়কর অর্জন ,বিধ্বস্ত অর্থনীতি নিয়ে একাত্তরে স্বাধীন বাংলাদেশের যাত্রা শুরু, বিদেশী সাহায্য ও ঋণনির্ভরতা কাটিয়ে স্বনির্ভর, ১৯৭২-৭৩ অর্থবছরের মাত্র ৩৪ কোটি মার্কিন ডলারের রফতানি আয় গত অর্থবছরে ৩ হাজার ৬শ'কোটি ডলার ছাড়িয়েছে * ড. কামালের বিরুদ্ধে ইবি শিক্ষকের মামলা, তিনি নিজের নিজের স্বরূপ ঢাকতে পারেননি-বললেন কাদের * খামোশ বললেই মানুষের মুখ বন্ধ হবে না: প্রধানমন্ত্রী * টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজও টাইগারদের * তারেক রহমানের মনোনয়ন বাণিজ্য * জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা * আবারও ক্ষমতায় আসবে আওয়ামীলীগ: ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স * ২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামছে সেনাবাহিনী, প্রতিটি টিমের সাথে থাকবেন ম্যাজিস্ট্রেটও * আসন্ন নির্বাচন এবং সৎ সাংবাদিকতার দায়িত্ব * ৫৮ নয়, ৫৪টি নিউজ পোর্টাল ও লিংক বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি * একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন : মোট প্রার্থী ১৮৪১, দলীয় ১৭৪৫, স্বতন্ত্র ৯৬ * বঙ্গবন্ধুর কবর জিয়ারত করেই কাল থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচারে নামছে আওয়ামী লীগ * একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ নিয়ে লড়বেন যারা * প্রতিক বরাদ্দের মধ্য দিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু হচ্ছে আজ * টেস্টের পর ওয়ানডেতেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দাপুটে জয় দিয়ে শুরু করল টাইগাররা * বিএনপি ২৪২ অন্যদের ৫৮ * আওয়ামীলীগ ২৫৮, জাপা ২৬টিতে জোটগত ১৩২টিতে উন্মুক্ত, মহাজোটের অন্যান্য শরিকরা ১৬টিতে লড়বেন * প্রার্থিতা প্রত্যাহার শেষ হচ্ছে আজ * বাংলাদেশ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সক্ষম - চীনা রাষ্ট্রদূত * মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগে বিএনপির পল্টন, গুলশান অফিসে হামলা ও তালা মেরে দিল বঞ্চিতরা *
     27,2018 Thursday at 06:16:34 Share

দুর্দান্ত খেলে পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপ ফাইনালে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত খেলে পাকিস্তানকে হারিয়ে এশিয়া কাপ ফাইনালে বাংলাদেশ

দুর্দান্ত খেলে এশিয়া কাপ ক্রিকেটের ফাইনালে পৌঁছে গেল বাংলাদেশ। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ৫০ ওভারের একবল বাকী থাকতে ২৩৯ রানে থেমে যায় টাইগারদের ইনিংস।  জয়ের জন্য ২৪০ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ২০২ রান করে পাকিস্তান। ফলে ৩৭ রানের জয় পেয়ে টানা দ্বীতিয়বার ফাইনাল খেলার আনন্দে মেতে উঠে ম্যাশবাহিনী।
সবশেষ ২০১৬ সালের আসরেও ফাইনাল খেলেছে বাংলাদেশ। তবে টুর্নামেন্টটা ছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সব মিলিয়ে মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের আসরে তৃতীয়বার ফাইনালে উঠলো টাইগাররা। ২০১২ সালের ফাইনালে খেলেছিল ওয়ানডে ফরম্যাটে। ঘরের মাঠে সেবার যাদের বিপক্ষে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল সাকিব-মুশফিকদের, সেই পাকিস্তানকে হারিয়েই এবার শিরোপা নির্ধারণী মঞ্চে উঠলো তারা। শুক্রবারের ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত।
ব্যাটিংয়ে সংগ্রহটা বড় করতে না পারায় বোলিংয়ে শুরুটা ভালো হওয়া দরকার ছিল বাংলাদেশের। মোস্তাফিজুর রহমানের সৌজন্যে সেটা পেয়ে যায় তারা। এই পেসারের জোড়া উইকেটের সঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজের আঘাতে ১৮ রানে পাকিস্তান হারায় ৩ উইকেট। ওই ধাক্কা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করেছিল ইমাম-উল-হক ও শোয়েব মালিক।
তবে দিনটা ছিল বাংলাদেশের। তাই ফর্মে থাকা মালিক (৩০) বেশিদূর যেতে পারেননি। ইমাম চমৎকার ইনিংস খেললেও অন্যপ্রান্তে উইকেট উৎসব করেছে বাংলাদেশ। যে উৎসবটা সবচেয়ে বেশি করেছেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি এই পেসার শুরুতে ধস নামনোর পর ৪৩ রানে পেয়েছেন ৪ উইকেট। দুটি উইকেট শিকার মিরাজের।
পাকিস্তানের পক্ষে প্রতিরোধ গড়েছিলেন ইমাম-উল-হক। সতীর্থদের ব্যর্থতার দিনে ঠাণ্ডা মাথায় ইনিংস গড়েছেন এই ওপেনার। তবে দলকে জেতাতে পারেননি তিনি। তার বিদায়ে পাকিস্তান হারায় ৭ উইকেট।
একপ্রান্ত আগলে রেখে পাকিস্তানকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন ইমাম। ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশকে অস্বস্তিতে রেখেছিলেন এই ওপেনার। মাহমুদউল্লাহ বলে দূর হয় সেই অস্বস্তি। এই স্পিনারের বল ক্রিজ ছেড়ে এসে মারতে গিয়ে স্টাম্পিংয়ের শিকার হন তিনি। আউট হওয়ার আগে খেলে যান ৮৩ রানের চমৎকার ইনিংস। ১০৫ বলের কার্যকরী ইনিংসটি তিনি সাজান ২ চার ও ১ ছক্কায়।
এদিকে লিটন দাস ক্যাচটা নিতে পারলে আগেই শেষ হয়ে যেত আসিফ আলীর ইনিংসটি। সেই ভুলটাই শুধরে নিলেন এই উইকেটরক্ষক। চমৎকার স্টাম্পিংয়ে আসিফকে ফিরিয়েছেন লিটন। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে এগিয়ে এসে খেলতে গিয়ে আউট হয়ে যান আসিফ। তার আগে ৪৭ বলে খেলেন কার্যকরী ৩১ রানের ইনিংস।
শোয়েব মালিকের বিদায়ে বড় ধাক্কা খায় পাকিস্তান। সেই ধাক্কাটা আরও জোরে লাগে খানিক পর শাদাব খান প্যাভিলিয়নের পথ ধরলে। সৌম্য সরকারের বলে মাত্র ৪ রান করে আউট হয়ে গেছেন তিনি। ব্যাট হাতে একেবারেই ব্যর্থ হওয়া সৌম্য বোলিংয়ে পেয়েছেন সাফল্য। তার বাউন্সার পুল করতে গিয়ে শাদাব ধরা পড়েন বদলি উইকেটরক্ষক লিটন দাসের গ্ল্যাভসে। বাজপাখির মতো ছোঁ মেরে তালুবন্দি করলেন বল, এরপর দাঁড়িয়ে উদযাপন করলেন উইকেট। মাশরাফির দাম্ভিক উদযাপনটা সত্যিই মানায়, উইকেটটা যে শোয়েব মালিকের। এর ওপর আবার ফর্মে থাকা পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানের ক্যাচটা নিলেন তিনি যেভাবে।
ইমাম-উল-হক ও মালিকের জুটিতে প্রতিরোধটা ভালোই গড়েছিল পাকিস্তান। রুবেল হোসেনের বলে ভাঙল সেই প্রতিরোধ। এই পেসারের বল মিড উইকেট দিয়ে খেলতে গিয়ে মালিক ধরা পড়েন মাশরাফির হাতে। সুপারম্যানের মতো উড়ে বল তালুবন্দি করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। প্যাভিলিয়নে ফেরার আগে মালিক ৫১ বলে করেন ৩০ রান।
বোলিংয়ে দারুণ শুরু হলো বাংলাদেশের। মোস্তাফিজুর রহমান তার টানা দুই ওভারে দুটি উইকেট নিয়েছেন। এশিয়া কাপ সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে মাত্র ১৮ রানে পাকিস্তানের ৩ উইকেট নেই। প্রথম ওভারেই পাকিস্তানের উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বাংলাদেশি স্পিনার তার পঞ্চম বলে মিড অনে ফখর জামানকে (১) রুবেল হোসেনের ক্যাচ বানান। পরের ওভারে মোস্তাফিজ তার দ্বিতীয় বলে বাবর আজমকে (১) এলবিডাব্লিউ করেন। বাঁহাতি এই পেসার তার দ্বিতীয় ওভারে অফ কাটারে সরফরাজ আহমেদকে ১০ রানে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানান।
বাংলাদেশকে উদ্ধার করলেও আক্ষেপ থেকে গেল মুশফিকুর রহিমের। মাত্র ১ রানের জন্য সেঞ্চুরি হলো না তার। সপ্তম সেঞ্চুরি থেকে হাতছোঁয়া দূরত্বে বিদায় নিলেও পাকিস্তানের বিপক্ষে লড়াই করার মতো স্কোর এনে দিয়েছেন তিনি। এশিয়া কাপ ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সাবেক চ্যাম্পিয়নদের ২৪০ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ।
টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ১২ রানে ৩ উইকেট হারালে মুশফিকের সঙ্গে মোহাম্মদ মিঠুনের একশ ছাড়ানো জুটিতে ২৩৯ রান করে বাংলাদেশ। মুশফিকের ৯৯ ও মিঠুনের ৬০ রানের ইনিংসই এই স্কোরের ভিত গড়ে দেয়। ৪৮.৫ ওভারে সব উইকেট হারায় বাংলাদেশ।
জুনাইদ খান ৪ উইকেট নিয়ে পাকিস্তানের সবচেয়ে সফল বোলার। দুটি করে নেন শাহীন শাহ আফ্রিদি ও হাসান আলী।

User Comments

  • খেলাধুলা