১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯ ২০:১:০৩
logo
logo banner
HeadLine
ইয়াবাকারবারিদের আত্মসমর্পণ: সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা ও ৩০ অস্ত্র জমা * প্রধানমন্ত্রীকে ৯৮ দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থার অভিনন্দন * বিলুপ্তি ও ক্ষমা প্রার্থনার আহবান জানিয়ে জামায়াত ছাড়লেন ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক * বঙ্গবন্ধুকে মুছে ফেলে খুবই চালাকির সঙ্গে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছিল * দ্রুতগতিতে চলছে ১০ মেগা প্রকল্প ও ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চলের নির্মাণকাজ * ভবিষ্যতে তরুণদের সুযোগ করে দিতে চাই - শেখ হাসিনা * একদিন আগেই শুরু হল বিশ্ব এজতেমা * ছয় দিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী আজ জার্মানি যাচ্ছেন * ২৮ দিনে জমির নামজারি , সর্বোচ্চ ৫৩ দিনে নক্সা অনুমোদন, ভবন নির্মাণে বীমা বাধ্যতামুলক * ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য উন্নত দেশ গড়তে চাই - প্রধানমন্ত্রী * ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি গ্রামবাসী সংঘর্ষ, নিহত চার * কর্ণফুলী টানেল : চট্টগ্রাম হবে ওয়ান সিটি টু টাউন * ১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন * 'জয় বাংলা' মুক্তিযুদ্ধের স্লোগান, বীর বাঙালীর স্লোগান * সব হজযাত্রায় খরচ বেড়েছে * ডাকসু'র তফসিল আজ * অল্প জমি ও মাটি ছাড়া সবজি, ফুল, ফল উৎপাদনের প্রযুক্তিকে চাষী পর্যায়ে নিয়ে যান - কৃষিমন্ত্রী * আরও ১২২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর নাম ঘোষণা * রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ বাসস্থান চায় ঢাকা * হিন্দুকুশের বরফ দ্রুত গলছে : ভেসে যাবে দশ নদীর অববাহিকা , বিপন্ন হবে ২শ' কোটি লোক * উপজেলা নির্বাচনে ৮৭ চেয়ারম্যান প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল আওয়ামীলীগ, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীতা থাকবে উন্মুক্ত * জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে আওয়ামী লীগের ঘোষনা * শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে আজ * দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার বাস্তবে রূপ দিতে হবে * সব ধরনের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে সরকারের নীতিমালা বৈধ: হাইকোর্ট * সন্দ্বীপ-চট্টগ্রাম ব্রিজ নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাই ও সন্দ্বীপে একটি প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের আহবান জানালেন প্রধানমন্ত্রী * ২১ গুণীজনের ২১শে পদক লাভ * দুদকের ৩৩ মামলায় ৩৮৪ বছর কারাদণ্ড হয়েছিল নির্দোষ জাহালমের! * প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হবে - প্রধানমন্ত্রী * সব ধরনের মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করার তাগিদ দিলেন প্রধানমন্ত্রী *
     12,2018 Friday at 10:24:25 Share

৮০ ভাগ ট্যাপের পানিতে ক্ষতিকর ই-কোলাই ব্যাক্টেরিয়া

৮০ ভাগ ট্যাপের পানিতে ক্ষতিকর ই-কোলাই ব্যাক্টেরিয়া

পাইপ লাইনে সরবরাহকৃত ট্যাপের ৮০ ভাগ পানিতে ক্ষতিকর জীবাণু ই-কোলাই পাওয়া গেছে। এই পানির মান পুকুরের পানির মতো উল্লেখ করেছে বিশ্বব্যাংক। সবমিলিয়ে দেশের ব্যবহারযোগ্য পানির ৪১ শতাংশে ক্ষতিকর এই ব্যাক্টেরিয়ার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। উল্লেখ্য, ডায়রিয়ার জন্য প্রধানত দায়ী এই ই-কোলাই ব্যাক্টেরিয়া মলমূত্র এবং পানির মাধ্যমে ছড়ায়।


 


গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে প্রকাশিত ‘প্রমিজিং প্রগ্রেস: এ ডায়াগনস্টিক অব ওয়াটার সাপ্লাই, স্যানিটেশন, হাইজিন অ্যান্ড পভার্টি ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম। বিশ্বব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর শিরিন জুমা, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রোকসানা কাদের, বিশ্ব ব্যাংকের জ্যেষ্ঠ অর্থনীতিবিদ জর্জ জোসেফ অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। পানি ও স্যানিটেশন খাতের উন্নয়ন করে বাংলাদেশের দারিদ্র্য হার আরো কমিয়ে আনা সম্ভব বলে উল্লেখ করেছে বিশ্বব্যাংক। অনুষ্ঠানে বিশ্বব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর শিরিন জুমা সতর্ক করে বলেন, পানি ও স্যানিটেশনের এই অবস্থা বাংলাদেশের সম্ভাবনাকে পেছনের দিকে নিয়ে যেতে পারে। কারণ শৈশবকালীন সময়ে বিশুদ্ধ পানি ও স্যানিটেশন নিশ্চিত করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পাঁচ বছরের নিচে এদেশের এক-তৃতীয়াংশের বেশি শিশু খর্বাকায়। তাদের বেড়ে উঠা এবং শিক্ষার সুযোগ তাই সীমিত। বাংলাদেশ পানি ও স্যানিটেশনে অনেক উন্নতি করেছে কিন্তু এর মানের দিকে গুরুত্ব দিতে হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি হিসাব উল্লেখ করে তিনি বলেন, বৈশ্বিকভাবে পানি ও স্যানিটেশন খাতে যদি ১ ডলার খরচ করা হয়, সেক্ষেত্রে এর বিপরীতে ৫ ডলার লাভ ফিরে আসবে। 


 


প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এদেশের ১৩ ভাগ পানির উেস আর্সেনিক পাওয়া  গেছে। আর্সেনিকের দূষণ চট্টগ্রাম ও সিলেটে বেশি লক্ষ্য করা গেছে। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণেও বাংলাদেশের পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। উপকূল অঞ্চলে লবণাক্ততার সমস্যা রয়েছে যা মূলত দরিদ্র্যদের বেশি ভোগাচ্ছে। এদেশে এক-তৃতীয়াংশ পরিবার দূষণের ঝুঁকিতে রয়েছে।


 


বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশ উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ বন্ধ করেছে বেশ সফলতার সঙ্গেই। কিন্তু এর পরেও দেশের ৫ কোটি মানুষ ভাগাভাগি করে ও নিম্ন মানের টয়লেট ব্যবহার করছে। মাত্র ২৮ ভাগ টয়লেটে সাবান ও পানির ব্যবস্থা রয়েছে। বিশেষ করে শহরাঞ্চলে বস্তি এলাকায় বিশুদ্ধ পানির সংকট বেশি।


 


প্রতিবেদনের বিষয়ে বিশ্বব্যাংকের জ্যেষ্ঠ অর্থনীতিবিদ জর্জ জোসেফ উল্লেখ করেছেন, বাংলাদেশের অর্ধেক শিল্প-কারখানায় টয়লেট সুবিধা রয়েছে। শুধু তাই নয়, অর্ধেক স্কুলে মেয়েদের জন্য পৃথক টয়লেটের ব্যবস্থা রয়েছে। এক-চতুর্থাংশ মেয়ে মাসিকের সময়ে এই কারণে স্কুলে যায় না। নিরাপদ ও উন্নত টয়লেট সুবিধা করা গেলে এদেশের নারীদের কর্মসংস্থানে উপস্থিতি আরো বাড়বে বলে তিনি উল্লেখ করেন।


 


প্রধান অতিথির বক্তব্যে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম বলেন, পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়নে সরকার অনেক কাজ করেছে। এর পরেও সেসব সমস্যা রয়েছে সেটা নিয়ে আমরা কাজ করছি। বাংলাদেশের সাতক্ষীরাসহ বিভিন্ন উপকূলীয় এলাকায় অনেক মানুষ লবণাক্ত পানির কারণে নানা রকম ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বলে উল্লেখ করেন প্রতিমন্ত্রী। ইত্তেফাক।


 

User Comments

  • আরো