১৭ জুন ২০১৯ ১৯:২৪:৩৮
logo
logo banner
HeadLine
টিকে থাকার ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ, একাদশে লিটন * ব্যাংকে টাকা আছে তবে লুটে খাওয়ার টাকা নেই: সংসদে প্রধানমন্ত্রী * সামনে দেশী-বিদেশী নানা চক্রান্ত ষড়যন্ত্র, ওসব মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকুন - প্রধানমন্ত্রী * চট্টগ্রামে বিশ্বমানের সেবা নিয়ে আজ যাত্রা শুরু করছে ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল * ঋণের সুদের হার সিঙ্গেল ডিজিটে নামিয়ে না আনলে কঠোর ব্যবস্থার হুশিয়ারি * পত্রিকা-টিভির মালিকদের ঋণের খবর নিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী * অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের তাগিদ প্রধানমন্ত্রীর * ২০৩০ সালের মধ্যে ৩ কোটি যুবকের কর্মসংস্থান করা হবে * নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী 'আমার গ্রাম আমার শহর' বাস্তবায়নে ৬৬২৩৪ কোটি টাকা * এই বাজেটে ধনী ও ব্যবসায়ী গোষ্ঠীর স্বার্থ রক্ষা করছে সরকার: বিএনপি * এ বাজেট জনকল্যাণমুখী: বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী * ২০১৯-২০ বাজেট বক্তৃতায় দেশের অগ্রগতি ও উন্নয়নের ইতিবাচক কিছু তথ্য * একনজরে স্বাধীন বাংলাদেশের সকল বাজেট : ৭৮৬ কোটি থেকে ৫ লাখ ২৩ হাজার কোটি টাকা * যুবদের 'ব্যবসা উদ্যোগ' সৃষ্টিতে ১০০ কোটি টাকা * পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের করমুক্ত আয়সীমা দ্বিগুন হল * পোশাক শিল্পে প্রণোদনা ২৮২৫ কোটি টাকা * আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে * বাজেটে সবার জন্য পেনশন ব্যবস্থা * মুক্তিযোদ্ধাসহ ভাতা বাড়ল যাদের * করমুক্ত আয়ের সীমা থাকছে আগের মতোই * প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ৮ দশমিক ২০ * করদাতার সংখ্যা শিগগির এক কোটিতে নেওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী * বাজেট কর্মমুখী, আছে কিছু হতাশাও * এডিপির জন্য বরাদ্দ ২ লাখ ২ হাজার ৭২১ কোটি টাকা * ১৮ বছরের কম বয়সীদের এনআইডি দেয়া হবে * এবারও সর্বোচ্চ বরাদ্দ শিক্ষা ও প্রযুক্তিতে * এই প্রথম প্রবাসীদের জন্য বীমা ও ২% প্রণোদনা * কালো টাকা সাদা করার সুযোগ বেড়েছে আরও * বিকেলে বাজেট-উত্তর প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন * বেতন-ভাতা-ভর্তুকি, সুদে বরাদ্দ ৬০ শতাংশ, উন্নয়নে ৪০ *
     11,2019 Monday at 10:59:46 Share

সিইসির খন্ডিত বক্তব্য নিয়ে বিতর্ক করা উচিত নয় - মাহবুব-উল আলম হানিফ

সিইসির খন্ডিত বক্তব্য নিয়ে বিতর্ক করা উচিত নয় - মাহবুব-উল আলম হানিফ

আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) নির্বাচনী অনিয়মের অভিযোগ থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য ইভিএম পদ্ধতির ব্যবহার যৌক্তিক বলে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। তাই সিইসির বক্তব্যের একটা খন্ডিত অংশ নিয়ে অহেতুক বিতর্ক করার কোন যৌক্তিকতা নেই। সেটা নিয়ে বিভ্রান্ত হওয়ারও কোন কারণ নেই। রবিবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। রাতে ব্যালট পেপারে সিল মেরে ভোটের বাক্স ভরা তথা মিডনাইট ভোট নিয়ে সিইসির বক্তব্যের এক প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্যটা সঠিকভাবে উত্থাপন হয়েছে কিনা, আমরা জানি না। একটা খন্ডিত অংশ নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। আমাদের দেশে প্রতিটি নির্বাচনের পরই পরাজিত দল এবং পরাজিত প্রার্থী নির্বাচন নিয়ে অভিযোগ করেন। তাই ইভিএম পদ্ধতি যদি ব্যবহার করা যায় তাহলে কিন্তু আর ব্যালটের সংশ্লিষ্টতা থাকে না। ব্যালট নিয়ে প্রার্থী বা দলের যে অভিযোগ সেটা নিয়ে অভিযোগ করার যৌক্তিকতা থাকে না।


তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার হয়ত এসব অভিযোগ থেকে মুক্ত হওয়ার জন্যই ইভিএম পদ্ধতির ব্যবহার যৌক্তিক বলে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন। সেটা নিয়ে বিভ্রান্ত হওয়ার কোন কারণ নেই। বক্তব্যের একটা খন্ডিত অংশ নিয়ে এই ধরনের অহেতুক বিতর্ক করার কোন যৌক্তিকতা নেই। নির্বাচনী প্রক্রিয়ার অনিয়মের কারণে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই বিরোধীদলীয় নেত্রী থাকাকালীন জোরালো দাবির প্রেক্ষিতে এখন স্বচ্ছ ব্যালট বাক্স, ছবিসহ ভোটার তালিকা ও কিছুক্ষেত্রে ইভিএম পদ্ধতির ব্যবহার চালু হয়েছে বলেও জানান তিনি।


কিছু উপজেলায় স্থানীয় এমপিদের অবস্থানের কারণে ইসি ভোট গ্রহণ স্থগিত করেছে। নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের কারণে এসব এমপির বিরুদ্ধে দলের পক্ষে সাংগঠনিক কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, সংসদ সদস্যরা তাদের আচরণবিধি লঙ্ঘন করে স্থানীয় নির্বাচন প্রক্রিয়ায় উপস্থিত হওয়ার কারণেই কিন্তু নির্বাচন কমিশন ওই এলাকার নির্বাচন স্থগিত করেছে। এটার মধ্য দিয়ে নির্বাচন কমিশন আবারও প্রমাণ করেছেন, অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু করার জন্য তারা বদ্ধপরিকর। আর যে সমস্ত সংসদ সদস্য এই ধরনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নেব।


প্রথম ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে হানিফ বলেন, আমাদের লক্ষ্য ছিল নির্বাচনটা অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক হোক। এখন অবধি আমাদের কাছে যে তথ্য এসেছে, আমরা যতটুকু জেনেছি, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে। দুই-একটি জায়গায় বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছিল। সে কারণে দুই-একটি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। তবে সব মিলিয়ে ভোটের পরিবেশ-পরিস্থিতি অত্যন্ত ভাল রয়েছে। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনার তথ্য পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, নির্বাচনে জয়-পরাজয় আছেই। নির্বাচনে পরাজিত হলেই অভিযোগ করে নির্বাচন থেকে দূরে থাকা কোন রাজনৈতিক দলের শুভ বুদ্ধির পরিচয় বহন করে না।


বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার বিএসএমএমইউ’তে চিকিৎসা নিতে অনীহা নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, উনি যদি নিজেকে সেই পরিমাণ অসুস্থ বোধ না করেন তাহলে তো চিকিৎসা নিতে অনীহা প্রকাশ করতেন না। আমি যদি সুস্থ মানুষ থাকি, আমাকে কেউ জোর করে চিকিৎসা দিতে চাইলে আমি কি নেব? আমি হয়ত অনীহাই প্রকাশ করব। উনি হয়ত নিজেকে সুস্থ মনে করছেন বা যেকোন কারণে মনে করছেন, এই মুহূর্তে তার চিকিৎসার প্রয়োজন নেই। সে কারণে অনীহা প্রকাশ করতে পারেন। আর একজন দন্ডপ্রাপ্ত কয়েদীর সব কিছুর দায়ভার কারাকর্তৃপক্ষের। কোন কয়েদী অসুস্থ হলে কারাবিধি অনুযায়ী কারা কর্তৃপক্ষ তার চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন। বেগম জিয়াকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার জন্য কারাকর্তৃপক্ষ বিভিন্ন সময়ে পদক্ষেপ নিয়েছেন।


সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল এমপি, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশীদ, শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা ও কার্যনির্বাহী সদস্য এসএম কামাল হোসেন।


 

User Comments

  • রাজনীতি