৩ জুন ২০২০ ১৪:২৪:৪৮
logo
logo banner
HeadLine
২ জুন : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ২০৬ * জনগণের কল্যাণের কথাই সরকার সবচেয়ে বেশি চিন্তা করছে : প্রধানমন্ত্রী * ২ জুন :দেশে আজ শনাক্ত ২৯১১, মৃত ৩৭ * ১ জুন : চট্টগ্রামে আজ শনাক্ত আরও ২০৮ * আক্রান্ত ও মৃত্যু অনুযায়ী সারা দেশকে বিভিন্ন জোনে ভাগ করে ব্যবস্থা নেয়ার পরিকল্পনা * সচিবালয়ে ২৫ শতাংশের বেশি কর্মকর্তার অফিস নয় * ১ জুন :দেশে আজ শনাক্ত ২৩৮১, মৃত ২২ * করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ২ হাজার কোটি টাকা সুদ মওকুফের ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর * ৩১ মে :দেশে সর্বোচ্চ শনাক্তের সাথে আজ মৃতও সর্বোচ্চ, শনাক্ত ২৫৪৫ মৃত ৪০ * এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৮২.৮৭ * এখনই খুলছে না শিক্ষা প্রতিষ্ঠান : প্রধানমন্ত্রী * ভাড়া বাড়ছে না রেলের, সব টিকিট অনলাইনে * ৩০ মে: চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ২৭৯ * বসলো ৩০তম স্প্যান, দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার * স্বাস্থ্যবিধি মানাতে মাঠে থাকছে ভ্রাম্যমান আদালত * করোনা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের আরও সম্পৃক্তির আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর * ৩০ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৭৬৪, মৃত ২৮ * স্বাস্থ্যবিধি মতো পরিস্থিতি মানিয়ে চলার ওপর গুরুত্ব সরকারের * সব হাসপাতালে করোনা রোগীর চিকিৎসা দেওয়ার নির্দেশ * ২৯ মে : পরীক্ষার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমন, দেশে আজ শনাক্ত আরও ২৫২৩ * করোনা পরীক্ষার অনুমতি পেল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় * ২৮ মে: চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ২২৯ * এ পর্যন্ত ৬ কোটি মানুষকে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে সরকার * সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত বহাল, বৃষ্টিপাত থাকতে পারে আরও ৩ দিন * ২৮ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ২০২৯, মৃত ১৫ * ১৫ শর্তে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত চলাচল সীমিত করে অফিস ও গণপরিবহন চালু * চট্টগ্রাম সিটিতে ১২টি করোনা টেস্টিং বুথ বসানোর উদ্যোগ মেয়রের * ২৭ মে : চট্টগ্রামে শনাক্ত আরও ২১৫ * ২৭ মে : দেশে আজ শনাক্ত আরও ১৫৪১, মৃত ২২ * সহসাই অনলাইন সংবাদ পোর্টালের রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার হবে : তথ্যমন্ত্রী *
     17,2019 Sunday at 19:43:17 Share

যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী

যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী

যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী


আসাদ মান্নান

কোনো রাজমহল নয়


অনেক পুরনো


ভগ্নপ্রায়


একটা বনেদী বাড়ি।


তার এক কোণে


তৈরি হওয়া


একটা টিনের ঘর;


এ ঘরেই জন্ম নেন


একটা আলোর শিশু,


এক ভূমিপুত্র:


মায়ের প্রাণের ধন


বাবার চোখের মণি।


২.


দ্যাখো তো দ্যাখি


কী এক অবাক কা-ই না ঘটে গেল


বড় হয়ে একদিন


সবার আদুরে খোকা হয়ে গেল


প্রথমে শেখ সাহেব


তারপর বঙ্গবন্ধু;


পাহাড় ডিঙ্গিয়ে


ঝড়ে ও ঝঞ্ঝায়


নদী-নালা খাল-বিল


সমুদ্র পেরিয়ে


অতঃপর


এক নদী রক্তে


ভাসতে ভাসতে


আকাশ ছাড়িয়ে


গৌরবের অপার সৌরভ


ছড়াতে ছড়াতে


একদিন অপরাহ্ণে


এক বিরান বধ্যভূমিতে


দু’চোখে অশ্রু


দু’হাত শূন্য


খালি মুখে


শুধু


এক পৃথিবী ভালোবাসা


বুকে নিয়ে


সদীপ্ত পায়ে


দাঁড়ালেন তিনি এসে


স্বজন হারানো কোটি স্বজনের পাশে,


মহান জাতির মহান জনক-


বাঙালীর পিতা মুজিবুর!


৩.


অথচ একটা খুব


অবহেলিত পিছিয়ে থাকা


অজগাঁয়ে


আর দশটা শিশুর মতো


সাদামাটা


আটপৌরে


জন্ম যার,


শৈশব থেকেই


তার সঙ্গে ছিল


একরোখা দূরন্ত হাওয়ার


দারুন মিতালী।


খুব দুষ্ট প্রকৃতির


ডানপিঠে


মা-বাবার আদরের খোকা


কোনওরূপ বন্ধন ছাড়াই


যখন তখন


সদলে বেড়াত ঘুরে


এখানে ওখানে


নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে


উল্লাসে সাঁতার কাটত;


প্রিয় শখ:


গান আর খেলাধুলা।


৪.


দিন হাঁটে


সময়ের অদৃশ্য বাহনে


রাত্রি তার পিছে পিছে পিছে ছোটে


ঘড়ির কাঁটায়


দিনে দিনে বেড়ে ওঠে


লীডার মুজিব


নেতাজীর


স্বদেশী হাওয়ার গন্ধ


তার নাকে আসে


স্বাধীনতাহীনতার


দীনতার


নির্মম যাতনা


বাজে তার বুকের তন্ত্রীতে


দেশ-মানুষের মুক্তির মন্ত্রণা


তার চিত্তে


যে আগুন জা¡লে


অন্ধকারে


দুঃসহ নির্জন কারাবাস


শাসক জান্তার রক্তচক্ষু


পরশ্রীকাতর পাড়া-পড়শির


হরেকরকম ষড়য্ন্ত্র


কিছু কিংবা কেউ আর


সে-আগুন নিভাতে পারে নি।


৫.


তুমি নেই পিতা,


কিন্তু আছে


সবখানে


তোমার বিশাল ছায়া-


তাকে কেউ সরাতে পারে নি,


কী করে সরাবে!


তোমার দেখানো পথে উড়ে আজ


বিজয় পতাকা,


শূন্য থেকে মহাশূন্যে


আমাদের মহাযাত্রা;


তোমার নামেই


যে-আগুন আমরা জ্বেলেছি


জ্বলে স্থলে অন্তরীক্ষে


সে-আগুন অবিনাশী ,


চির অনির্বাণ-


এ আগুন কেউ আর


নিভাতে পারে না,


কী করে নিভাবে!


যেখানে জনক তুমি মৃত্যুঞ্জয়ী।
(জনকণ্ঠে প্রকাশিত)।

User Comments

  • আরো