১২ ডিসেম্বর ২০১৯ ৮:৬:৫৪
logo
logo banner
HeadLine
রাখাইনে গণহত্যা : আইসিজেতে বিচারের শুনানি শুরু * ১৬ ডিসেম্বর থেকে রাষ্ট্রের সর্বস্তরে 'জয় বাংলা' জাতীয় স্লোগান হওয়া উচিত : হাইকোর্ট * আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করা হবে, অপরাধীকে শাস্তি পেতেই হবে * ইভিনিং কোর্স পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সার্বিক শিক্ষার পরিবেশ বিঘ্নিত করছে : রাষ্ট্রপতি * রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন * নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে জনগণকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী * নারীদের পর পুরুষ দলও এসএ গেমস ক্রিকেটে স্বর্ণ জিতলো * প্রত্যেক টিআইএনধারীকে রিটার্ন দাখিলে বাধ্য করা হবে * আগামী দিনের আওয়ামী লীগ * রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী * চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের নতুন নেতৃত্বে সালাম-আতাউর * ৬ ডিসেম্বার, ১৯৭১ : 'বাংলাদেশ স্বাধীন' - ভারত * মেরিটাইম উচ্চশিক্ষার প্রয়োজনীয়তা * বছরের প্রথম দিনই চার কোটি ৩০ লাখ শিক্ষার্থীর হাতে তুলে দেয়া হবে ৩৫ কোটি বই * বাংলাদেশ-ভারত যৌথ কমান্ড : ৩ ডিসেম্বর, ১৯৭১ * মুক্তিযোদ্ধাদের অসচ্ছলতা রাষ্ট্রের জন্য লজ্জার: হাইকোর্ট * স্পেন সফর শেষে ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী * ব্যর্থ হলে শিশুরা ক্ষমা করবে না, বিশ্বনেতাদের হাসিনা * কপ-২৫ সম্মেলন ও বাংলাদেশ * মাদ্রিদে শুরু হলো জলবায়ু সম্মেলন কপ-২৫, যোগ দিচ্ছেন শেখ হাসিনা * দুর্নীতি, সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে - প্রধানমন্ত্রী * চলতি মাসে একাধিক শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা * অনলাইন সংবাদ মাধ্যমের নিবন্ধন শুরু আগামী সপ্তাহে: তথ্যমন্ত্রী * বাড়ি ভাড়া নির্ধারণ নিয়ে হাইকোর্টের রুল * 'অবৈধভাবে উপার্জিত অর্থ দিয়ে বিরিয়ানি-পোলাও খাওয়ার চেয়ে সাদাসিধে জীবনযাপন করা অনেক অনেক সম্মানের - প্রধানমন্ত্রী * রোহিঙ্গা ইস্যুতে রিয়াদ সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে * বিশ্বব্যাপী উদযাপন হবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী * সিএমপি কমিশনারের কাছে ফেইসবুকেও অভিযোগ জানানো যাবে * হ‌লি আর্টিজানে হামলা মামলায় ৮ আসামীর ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড * ইতিহাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা *
     22,2019 Monday at 09:51:10 Share

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২০৭, গ্রেফতার ৭

শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২০৭, গ্রেফতার ৭

শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ সিরিজ বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২০৭ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন ৪৫০ জন। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান।


প্রতিবেদনে বলা হয়, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৯০ জনে দাঁড়িয়েছে; সরকারের এমন ঘোষণার কয়েক মিনিটের মাথায় ২০৭ জন নিহতের খবর দেয় পুলিশ। শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী রুয়ান বিজয়বর্ধন জানিয়েছেন, অপরাধীদের শনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছেন তদন্তকারীরা। ইতোমধ্যে সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


তিনি জানান, হামলায় নিহতদের মধ্যে ৩০ জন বিদেশিও রয়েছেন। দেশ এবং দেশের জনগণকে নিরাপদ রাখতে সরকার প্রয়োজনীয় সব ধরনের সতর্কতা অবলম্বন করছে বলেও জানান রুয়ান বিজয়বর্ধন। তিনি বলেন, আমাদের বিশ্বাস দুর্ভাগ্যজনক এই সন্ত্রাসী হামলায় জড়িত সব অপরাধীকে যত দ্রুত সম্ভব হেফাজতে নেওয়া হবে। তাদের শনাক্ত করা হয়েছে।


রবিবার খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের ইস্টার সানডে উদযাপনকালে রাজধানী কলম্বো ও তার আশপাশের তিনটি গির্জা এবং তিনটি হোটেলে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। তবে এখন পর্যন্ত কোনও গোষ্ঠী এই হামলার দায় স্বীকার করেনি।


কলম্বোর কোচিচিকাদের সেন্ট অ্যান্থনি চার্চে প্রথম বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। দ্বিতীয় হামলাটি ঘটে কুতুয়াপিটায়ের সেন্ট সিবাস্তিয়ান চার্চে। আর তৃতীয় বিস্ফোরণটি ঘটে নেগোম্বো শহরের বাত্তিকালোয়া চার্চে। এছাড়া কলম্বোর তিনটি পাঁচতারকা হোটেলেও বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটের দিকে ইস্টার সানডে’র অনুষ্ঠান চলার মধ্যে এসব বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।


ঠিক কী কারণে কারা এ হামলা চালিয়েছে তাৎক্ষণিকভাবে তা জানা যায়নি। পুলিশ সূত্রকে উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, শুধু নেগোম্বোতে বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, বাত্তিকালোয়া চার্চে নিহতের সংখ্যা ২৭ হতে পারে। প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রীয় বাসভবনের কাছে অবস্থিত সিনামন গ্র্যান্ড হোটেলের এক কর্মচারী বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, হোটেলের এক রেস্তরাঁয় বিস্ফোরণ ঘটানো হলে অন্তত একজন নিহত হয়েছেন। নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বলেছেন, তারা বিস্ফোরণের বিষয়ে তথ্য খতিয়ে দেখছেন।


কলম্বোর সেন্ট অ্যান্থনি চার্চে প্রথম বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ওই বিস্ফোরণের এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, বিস্ফোরণে পুরো ভবন কেঁপে ওঠে। দ্বিতীয় আরেকটি বিস্ফোরণ ঘটেছে রাজধানী কলম্বোর উত্তরে নেগোম্বো শহরের আরেকটি চার্চে। নিজেদের ফেসবুক পাতায় সাহায্য চেয়ে আবেদন করেছেন ওই চার্চ কর্তৃপক্ষ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে কুতুয়াপিটায়ের সেন্ট সিবাস্তিয়ান চার্চের অভ্যন্তরে ছিন্নভিন্ন ছাদের ছবি দেখা গেছে। মেঝেতে রক্ত পড়ে থাকার ছবিও দেখা গেছে।

User Comments

  • আন্তর্জাতিক