১৮ মে ২০২১ ১১:৪১:০৬
logo
logo banner
HeadLine
হেনস্তার পর সাংবাদিক রোজিনার বিরুদ্ধে তথ্য চুরির মামলা * ১৭ মে, ২০২১ : ৬.৬৯ হারে দেশে নতুন শনাক্ত ৬৯৮, মৃত্যু ৩২, সুস্থ ১০৫৮ জন * শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আগে শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা * বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ২২৭ ডলারে দাঁড়িয়েছে * ইতিহাস আর কেউ মুছতে পারবে না, বাংলাদেশ এগিয়ে যাবেই : শেখ হাসিনা * ১৬ মে, ২০২১ : করোনায় নতুন আক্রান্ত ৩৬৩ জন, মারা গেছেন ২৫ ও সুস্থ হয়েছেন ৬০১ জন * ২৩ মে পর্যন্ত চলমান বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন * ২৯মে পর্যন্ত বাড়লো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি * শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস কাল * ১৫ মে, ২০২১ : করোনায় নতুন শনাক্ত ২৬১ জন, ২২ জনের মৃত্যু * ঈদের ছুটি শেষে কাল খুলছে ব্যাংক ও শেয়ারবাজার * শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি আবারও বাড়তে পারে * আবারও বাড়ছে লকডাউন, প্রজ্ঞাপন কাল * ১৪ মে, ২০২১ : দেশে নতুন আক্রান্ত ৮৪৮ জন, মারা গেছেন ২৬ জন, সুস্থ হয়েছেন ৮৫২ জন * যথাযোগ্য মর্যাদায় সারাদেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন *
     14,2021 Friday at 21:03:22 Share

কালো টাকা সাদা করার সুযোগ বেড়েছে আরও

কালো টাকা সাদা করার সুযোগ বেড়েছে আরও

বাজেটে অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগের সুযোগ এবার আরো অবারিত করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। মাত্র ১০ শতাংশ কর দিয়ে অর্থনৈতিক অঞ্চল ও হাইটেক পার্কে অবস্থিত শিল্পে অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগ করা যাবে। এর আগে আবাসন খাতে নির্দিষ্ট পরিমাণ কর দিয়ে অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগের সুযোগ ছিল।

এবার জমি ক্রয়ের ক্ষেত্রেও এ সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। আর সব খাতেই প্রযোজ্য হারে কর ও এর ওপর ১০ শতাংশ জরিমানা দিয়ে অপ্রদর্শিত অর্থ বৈধ করার সুযোগ ছিল। তবে এবার অর্থনৈতিক অঞ্চল ও হাইটেক পার্কে অপ্রদর্শিত অর্থের মালিকরা অপেক্ষাকৃত কম কর পরিশোধ করেই কালো টাকা বৈধ করতে পারবেন। অথচ বর্তমানে একজন নিয়মিত করদাতাকে সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ কর পরিশোধ করতে হয়।

মূলত নির্দিষ্ট কিছু খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে সরকার অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগের এ সুযোগ দিয়েছে। তবে এর ফলে নিয়মিত কর পরিশোধকারীদের চাইতে অপ্রদর্শিত অর্থের মালিকরা কম কর দিয়ে টাকা বৈধ করার সুযোগ পাওয়ায় নিয়মিত করদাতারা নিরুত্সাহিত হতে পারেন বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। অন্যদিকে অপ্রদর্শিত অর্থের মালিকরা আরো উত্সাহিত হতে পারেন।

আবাসন খাতে অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাব অনুযায়ী বিভিন্ন এলাকাভিত্তিক অপেক্ষাকৃত কম টাকা পরিশোধ করে অপ্রদর্শিত অর্থ বৈধ করা যাবে। প্রস্তাব অনুযায়ী গুলশান, বনানী, বারিধারা, মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকায় ও এগুলোর দুইশ বর্গমিটারের মধ্যে অ্যাপার্টমেন্ট বা ভবন ক্রয়ে প্রতি বর্গমিটারে বিদ্যমান কর সাত হাজার ও পাঁচ হাজার টাকার স্থলে পাঁচ হাজার ও চার হাজার টাকা হচ্ছে। এছাড়া এসব এলাকায় প্রতি বর্গমিটার জমিতে ১৫ হাজার টাকা কর দিয়ে বৈধ করা যাবে।

একইভাবে রাজধানীর অন্যান্য এলাকা, সিটি করপোরেশন ও পৌরসভায় অ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ে বিদ্যমান করের পরিমাণ কমছে। ওইসব এলাকায় জমি ক্রয়ের ক্ষেত্রেও নির্দিষ্ট পরিমাণ কর দিয়ে টাকা বৈধ করা যাবে।

User Comments

  • ব্যবসা ওঅর্থনীতি